banglanewspaper

দেশের মাটিতে স্মরণীয় আয়োজনের মাধ্যমে মাশরাফি বিন মর্তুজাকে বিদায় জানাতে চায় বিসিবি। কিন্তু ২০২০ সালের নভেম্বর পর্যন্ত দেশের মাটিতে কোন ওয়ানডে নেই!

আইসিসি প্রকাশিত এফটিপি (ফিউচার ট্যুর প্ল্যান) অনুযায়ী আগামি বছরের (২০২০) ডিসেম্বরে সফরকারী শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দেশের মাটিতে পরবর্তী ওয়ানডে সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ।

সেক্ষেত্রে বিকল্প ভাবনা ভেবে রেখেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেটে সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক এই সংস্থাটি। অধিনায়কের বিদায় যেন প্রলম্বিত না হয় সেজন্য আগামি মাসে বাংলাদেশ, জিম্বাবুয়ে ও আফগানিস্তানকে নিয়ে ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় সিরিজেই আনুষ্ঠানিকতা সারতে চেয়েছিল বিসিবি। কিন্তু গেল মাসের শেষদিকে জিম্বাবুয়ের ওপর আইসিসির নিষেধাজ্ঞার খড়গ নেমে এলে বিসিবির সেই পরিকল্পনা হোঁচট খায়।

উদ্ভুত পরিস্থিতিতে তিন জাতির টুর্নামেন্টে অংশ নিতে বিসিবির কাছে সময় চায় জিম্বাবুইয়ান ক্রিকেট বোর্ড। কিন্তু বোর্ডটির পক্ষ থেকে এখনো চুড়ান্ত কিছুই জানানো হয়নি। ফলে টুর্নামেন্টটির সফল বাস্তবায়নে এই মুহুর্তে তাদের দিকেই তাকিয়ে বিসিবি।

তারা অংশগ্রহণ নিশ্চিত করলে তিন জাতির টি টোয়েন্টি ফরম্যাটের এই টুর্নামেন্টে তাদের বিপক্ষে নুন্যতম দু’টি ওয়ানডে আয়োজন করে মাশরাফির বিদায়ী অনুষ্ঠান আয়োজিত হবে।

মঙ্গলবার বিসিবিতে সংবাদ মাধ্যমকে একথা জানান সিইও নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন। তিনি বলেন, ‘আইসিসির এফটিপি অনুযায়ী আফগানিস্তানের যে সফরটা ছিল একটা টেস্ট, ওয়ানডে বা টি-টোয়েন্টি খেলার ব্যাপারে সেটাকে আমরা জিম্বাবুয়ের অনুরোধে একটা ত্রিদেশীয় সিরিজ করার সিদ্ধান্ত নেই গত আইসিসি মিটিংয়ে।

তারই ধারাবাহিকতায় এখন যেটা হয়েছে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডের কিছু নিষেধাজ্ঞার কারণে তাদের অংশগ্রহণ নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছিলো। আমাদের সাথে সর্বশেষ যে কথা হয়েছে তাঁরা বলেছে যে সিরিজটি অন আছে। আশা করছে ২-১দিনের মধ্যে ওদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আমরা জানতে পারবো।’

আর শেষ পর্যন্ত জিম্বাবুয়ে না এলে আফগানিস্তানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলবে স্বাগতিক বাংলাদেশ। ‘আমরা দুই বোর্ডের সাথেই কথা বলছি, যদি জিম্বাবুয়ে না আসে তাহলে আমরা আফগানিস্তানের সাথে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলবো। এখন পর্যন্ত আফগানিস্তান এবং জিম্বাবুয়েকে নিয়ে সিরিজের ব্যাপারে যে কথা হচ্ছে বা যোগাযোগ হচ্ছে তাতে ট্রাই নেশনের ব্যাপারেই বলা আছে।’

ট্যাগ: bdnewshour24 মাশরাফি বিসিবি