banglanewspaper

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে এক অনুষ্ঠানে স্যামসাং তাদের নতুন দুই ফ্লাগশিপ ফোন অবমুক্ত করেছে। এগুলো হলো গ্যালাক্সি নোট টেন এবং নোট টেন প্লাস। 

গ্যালাক্সি নোট টেন ফোনে রয়েছে ৬.৩ ইঞ্চির ডিসপ্লে। নোট সিরিজের তুলনামুলক ছোট ডিসপ্লের এই ফোনে  এস পেন ব্যবহার করা যাবে। অন্যদিকে গ্যালাক্সি নোট টেন প্লাসে রয়েছে ৬.৮  ইঞ্চির বড় ডিসপ্লে। এটাই আজ পর্যন্ত গ্যালাক্সি নোট সিরিজের সিরিজের সবথেকে বড় ডিসপ্লে।

স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট টেন এবং নোট টেন প্লাস ফোনের ডিসপ্লে, ব্যাটারি ও মেমোরি আলাদা হলেও অন্যান্য স্পেসিফিকেশন একই। দুটি ফোনেই থাকছে ডাইনামিক অ্যামোলিড ডিসপ্লে।

এলটিই ভেরিয়েন্টে ৮ জিবি র‌্যাম  ২৫৬ জিবি স্টোরেজ পাওয়া যাবে নোট টেন। তবে এই ফোনে মাইক্রো এসডি কার্ড স্লট থাকছে না। ফাইভ জি ভেরিয়েন্টে নোট টেন প্লাসে থাকছে ১২ জিবি র‌্যাম। 

অন্যদিকে গ্যালাক্সি নোট টেন প্লাস ফোনে মাইক্রো এসডি কার্ড স্লট রয়েছে। ১ টেরাবাইট পর্যন্ত মেমোরি কার্ড সাপোর্ট করবে এই ফোনে। থাকছে ১২ জিবি র‌্যাম এবং ৫১২ জিবি স্টোরেজ।

নোট টেন মডেলের ফোনে ৩৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ারের ব্যাটারি থাকছে।  নোট টেন প্লাসে দেয়া হয়েছে ৪৩০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ারের শক্তিশালী ব্যাটারি। ফাইভ জি ভার্সনে ফোনটি বাজারে পাওয়া যাবে। 

স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট টেনের দাম শুরু ৯৪৯ মার্কিন ডলার। টেন প্লাসের দাম ১০৯৯ মার্কিন ডলার।

উভয় ফোনে কোনো হেডফোন জ্যাক থাকছে না। এই ফোনে ডিসপ্লের নিচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর থাকছে। বিশেষ ফিচার হিসেবে রয়েছে  ব্লুটুথ ভার্সন ফাইভ, টাইপ সি পোর্ট, এনএফসি এবং জিপিএস। 

ছবি তোলার জন্য গ্যালাক্সি নোট টেনের ফোনের পিছনে থাকছে তিনটি ক্যামেরা। সেখানে থাকছে একটি ১২ মেগাপিক্সেল টেলিফটো লেন্স। থাকছে অপ্টিক্যাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশন। থাকছে একটি ১২ মেগাপিক্সেল ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা আর থাকছে একটি ১৬ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা।

তিনটি ক্যামেরা ছাড়াও  নোট টেন প্লাসের পিছনে রয়েছে একটি ভিজিএ ডেপ্ত সেন্সর। উভয় মডেলের ফোনে সেলফির জন্য আছে ১০ সেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা।

ট্যাগ: bdnewshour24 ১২ জিবি র‌্যাম বড় ডিসপ্লে গ্যালাক্সি নোট টেন