banglanewspaper

মাগুরা প্রতিনিধি: মাগুরায় এক শাড়িতে গলায় ফাঁস দেয়া ঝুলন্ত অবস্থায় এক নবদম্পতির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) সন্ধ্যার পর সদর উপজেলার রাঘবদাইড় গ্রাম থেকে তাদের মরদেহ দুটি উদ্ধার করে পুলিশ। প্রেমের সম্পর্কের বিয়ের ঘটনা বাড়ি থেকে মেনে না নেওয়ায় এক শাড়িতে গলায় ফাঁস দিয়ে তাঁরা আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করছেন স্বজনরা।    

নিহতরা হলেন- স্বামী নীরব বিশ্বাস (২০) ও তাঁর স্ত্রী শ্রাবণী বিশ্বাস (১৮)। গত ৩০ জুলাই দুজনে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ বিয়ে হয়েছিল তারা।
        
পারিবারিক ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার বিকেলের দিকে বাড়িতে কেউ ছিলেন না। এই ফাঁকে নিজেদের শোবার ঘরের আড়ার সঙ্গে একই শাড়ির দুই প্রান্তে দুজন গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেন তাঁরা। সন্ধ্যার পর বাড়ির লোকজন টের পেয়ে ঘরের দরজা ভেঙে তাঁদের দুই জনকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। পরে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে। 
 
মাগুরা সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম জানান, রাঘবদাইড় গ্রামের রবিন্দ্রনাথ বিশ্বাসের পুত্র নীরব বিশ্বাস ও শালিখা উপজেলার ধনেশ্বরগাতী গ্রামের বিশ্বজিৎ বিশ্বাসের মেয়ে শ্রাবণী বিশ্বাসের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিছুদিন আগে গত ৩০ জুলাই তারিখে নিজেদের পছন্দে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন তারা। কিন্তু ছেলের বাড়ি থেকে তাঁদের এ বিয়ে মেনে নিলেও মেয়ে শ্রাবণীর বাড়ি থেকে বিয়ে মেনে নেয়নি। এ কারনে মনোকষ্টে ভুগছিলেন তারা। যার জন্য একই শাড়ির দুই প্রান্তে দুইজন একসাথে গলায় ফাস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। 

মরদেহ দুটি উদ্ধারের পর ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে মাগুরা সদর থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

ট্যাগ: bdnewshour মাগুরা