banglanewspaper

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরে অভিযোগের একদিন পরই মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) নতুন মোবাইল পেলেন এক কলেজছাত্রী। মোবাইল কিনে প্রতারিত হওয়ায় ১৯ আগস্ট পূজা নামের ওই শিক্ষার্থী অভিযোগ করেছিলেন। মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসক এসএম ফেরদৌস নতুন ফোনটি তার হাতে তুলে দেন।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল জানান, মানিকগঞ্জ জেলা কার্যালয়ে ১৯ আগস্ট পূজা লিখিত অভিযোগ করেন।

তার অভিযোগ, ছয় মাস আগে মানিকগঞ্জ শহরের শহীদ রফিক সড়কে প্রাপ্তি টেলিকম মোবাইল শপ থেকে তিনি শাওমি Note 5Ai ফোন কেনেন। ফোনটি ব্যবহারের কয়েক দিনের মাথায নষ্ট হয়ে যায়। তিনি শাওমির সার্ভিসিং সেন্টারে মেরামত করতে গিয়ে জানতে পারেন তার ফোনটি আন-অথরাইজড। তিনি প্রাপ্তি টেলিকম সেন্টারে গিয়ে যোগাযোগ করলে তারা বিষয়টি কানে তোলেনি। পরে তিনি জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরে লিখিত অভিযোগ করেন। ওই দিনই জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল প্রাপ্তি টেলিকম সেন্টারে অভিযান পরিচালনা করেন এবং অভিযোগের সত্যতার ভিত্তিতে উক্ত প্রতিষ্ঠান মালিককে মোবাইল ফোন রিপ্লেসের আদেশ দেন এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের প্রতারণা না করতে কঠোরভাবে নির্দেশ দেন।

ওই দোকানে Note 5Ai মডেলের ফোন না থাকায় এক হাজার টাকা বেশি দামের নতুন শাওমি  Note 7 মডেলের ফোন দেওয়া হয় তাকে।

ট্যাগ: bdnewshour ভোক্তা অধিকার