banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি: শিক্ষক নিয়োগে অনিয়ম, ভুয়া শিক্ষা সনদ,রেজুলেশন ছাড়াই মাদরাসার গাছ কর্তন, ও জমি বিক্রি, জালজালিয়াতি করে কমিটি গঠন ও নিয়মের তোয়াক্কা না করে প্রাতিষ্ঠানিক কর্যক্রম চালানোসহ নানা অভিযোগ রয়েছে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার একাধিক আলিয়া মাদরাসা গুলোর বিরুদ্ধে। 

বৃহস্পতিবার (২৪ আগস্ট) সরেজমিনে গিয়ে উপজেলার সাগরিয়া বালিকা দাখিল মাদরাসায় এমন কিছু ভয়ংকার তথ্য জানা যায়।

২য় পর্ব-সাগরিয়া বালিকা দাখিল মাদরাসার সুপারের অনিয়ম।

সাগরিয়া বালিকা দাখিল মাদরাসায় অবৈধ নিয়োগ, সনদ জালজালিয়াতি,সুপারের দুর্নীতি, ছাত্রী যৌন নিপিড়নসহ একাধিক অভিযোগ মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস এবং প্রশাসনের তদন্তে প্রমাণিত ও আরো কিছু চলমান।

মাদরাসায় গিয়ে জানা যায়, শ্রীপুর উপজেলাধীন সাগরিয়া বালিকা দাখিল মাদরাসা (এমপিও কোড: ২৭০৫০৭২১০২) এর নিয়োগকৃত সুপার মো: নুরুল আমীন মৃধা ইনডেক্স নং- ৩৪২১৮২ যাহা সম্পুর্ন ভুয়া। এর এমপিও  ভুিক্তর আবেদন ২৯ জুলাই ২০১৭ তারিখে প্রতিষ্ঠান থেকে অনলাইনে প্রেরণ করা হয়। অনলাইন আবেদন এর হার্ড কপি অনুযায়ী দেখা যায় এ আবেদনটি উপ পরিচালক মাউশি, ঢাকা অঞ্চল এর দপ্তরে বিভিন্ন ধাপে ১৪ জানুয়ারী ২০১৯  পর্যন্ত বিদ্যমান আছে। ইতিমধ্যে নুরুল আমীন মৃধার কামিল সনদ মাদরাসা বোর্ড থেকে জাল বলিয়া অবহিত করা হয় এবং তার ইনডেক্সটি মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে ভূয়া বলে আখ্যায়িত করে। এছাড়াও তার নিয়োগ অবৈধ ও বিধি বহির্ভূত বলে মন্ত্রনালয় থেকে পত্রের মাধ্যমে নির্দেশনা প্রদান করা হয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাদরাসা ও কারিগরি বিভাগ থেকে তার এমপিও না হওয়ার জন্য মাদরাসা অধিদপ্তরকে পত্রের মাধ্যমে নির্দেশ প্রদান করেন। মাদরাসা অধিদপ্তর ও মাদরাসা শিক্ষা ও কারিগরি বিভাগের নির্দেশনা মোতাবেক তার নিয়োগ অবৈধ ও বিধি বহির্ভূত ঘোষণা করায়  মো: নুরুল আমীন মৃধার নিয়োগ গত ১৮ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে কমিটি কর্তৃক বাতিল করা হয়। তার নিয়োগ বাতিল করার পরেও মাদরাসার পাসওয়ার্ড, প্যাড, সীল, ব্যবহার করে বিভিন্ন  জায়গায় বিভ্রান্তির সৃষ্টি করছেন বলে অভিযোগ করেন মাদরাসা কর্তৃপক্ষ।  

৪ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক স্বাক্ষরীত একটি তদন্ত প্রতিবেদনে জানা যায়, ২৪.০৩.২০১৩ জারীকৃত জনবল কাঠামো সম্পর্কিত নির্দেশিকা অনুযায়ী দাখিল মাদরাসার সুপার পদে নিয়োগ প্রাপ্তির জন্য দাখিল স্তরে শিক্ষকতায় ১২ বছরের অভিজ্ঞতার প্রয়োজন। সে অনুযায়ী সাগরিকা বালিকা  মাদরাসার সুপার তার আবেদন পত্রে দক্ষিণ টাঙ্গাব বালিকা মাদরাসা, গফরগাঁও, ময়মনসিংহে সুপার পদে ২০ জানুয়ারী ২০০৯ হইতে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত চাকুরীর অভিজ্ঞতা দেখিয়েছেন এবং ইডেক্স নং- ৩৪৮১৮২ ব্যবহার করেছেন যা সম্পূর্ণ ভূয়া।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মো: নুরুল আমীন মৃধা দক্ষিণ টাংগাব বালিকা দাখিল মাদরাসা গফরগাঁও ময়মনসিংহে নিম্নমান সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে কর্মরত ছিলেন এবং অন্য কোথাও (দাখিল মাদরাসায়) শিক্ষক পদে চাকুরী করার নিয়োগপত্র পাওয়ার কোন প্রমাণ পাওয়া যায় নাই। তাই নিম্ন সহকারী কাম কম্পিউটার নুরুল আমীন মৃধাকে সাগরিয়া বালিকা মাদরাসা সুপার পদে নিয়োগ দেওয়া সম্পূর্ণ অবৈধ ও বিধিবহির্ভূত ঘোষনা করা হয়।

এছাড়াও তার শিক্ষাগত কামিল সনদ জাল, যাহা মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক প্রমাণিত। দক্ষিণ টাঙ্গাব দাখিল মাদরাসা, গফরগাঁও, ময়মনসিংহের এমপিও শীটে টেম্পারিং করে নিজেকে সুপার বানিয়েছেন। মূলত দাখিলকৃত এমপিও ইনডেক্স ভূয়া। এছাড়াও অত্র মাদরাসার ১০ম শ্রেণীর ছাত্রীর সাথে তার যৌন হয়রানির বিষয়টিও প্রমাণিত।যৌন হয়রানির পর থেকে তিনি একটানা ২ বছর মাদরাসায় অনুপস্থিত রয়েছেন বলেও জানা যায়।

অবৈধ নিয়োগ, সনদ জালজালিয়াতি, দুর্নীতি,ছাত্রী যৌন নিপিড়নসহ একাধিক বিষয়ে জানার জন্য তার সাথে যোগাযোগ করার চেষ্ঠা করলেও  তাকে পাওয়া যায়নি। 

এ বিষয়ে সাগরিয়া দাখিল মাদরাসার বর্তমান সভাপতি আ: লতিফ মন্ডল জানান, নুরুল আমিন মৃধার বিরুদ্ধে সরকারী ৪টি তদন্তে যথা অবৈধ নিয়োগ,সনদ জালজালিয়াতি, দুর্নীতি, ছাত্রী যৌন নিপিড়ন প্রমানিত হওয়ায় তার নিয়োগ বাতিল করা হয়। এসকল দুর্ণীতির বিষয়ে আগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম ঢালী অনেকটা দায়ী  বলেও জানান তিনি।

বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সুপার আব্দুল মতিন জানান, নুরুল আমিন মৃধা অবৈধ ভাবে নিয়োগ পাওয়ার পর থেকে আনিত অভিযোগগুলি সত্য প্রমানিত হওয়ায় তার নিয়োগ বাতিল করা হয়েছে এবং আইনী ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। সে শুধু অত্র প্রতিষ্ঠানই নয় জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জাল জালিয়াতির মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে থাকে। 

জানতে চাইলে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম জানান, অভিযোগের বিষয়ে ৪টি সরকারী তদন্তে তার অভিযোগ সমুহ প্রমানিত হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আরো তদন্ত চলছে। তদন্তের পর প্রয়োজনীয় আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ট্যাগ: bdnewshour শ্রীপুর