banglanewspaper

মাগুরা প্রতিনিধি: কিশোর অপরাধ দমনে সম্প্রতি মাগুরায় পুলিশের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপ সম্পর্কে অবহিত করতে স্থানীয় সংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করে মাগুরা জেলা পুলিশ। পুলিশ সুপার কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমে শনিবার সকালে এ সভায় সাম্প্রতিক সময়ের উঠতি বয়সী তরুন ও কিশোরদের দ্বারা সংগঠিত অপরাধ মুলক কর্মকান্ডের চিত্র তুলে ধরে তা রোধে পুলিশের পক্ষে গৃহিত নানা পদক্ষেপ সম্পর্কে সাংবাদিকদের অবহিত করা হয়।    

পুলিশ সুপার জানান, 'জুলাই মাসে মাগুরা জেলায় পর পর তিনটি হত্যাকাণ্ড, হত্যা প্রচেষ্টা, চাঁদাবাজি, ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপরাধ কর্মকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে। আর এ সকল হত্যাসহ প্রতিটি ঘটনার সঙ্গে জড়িত অপরাধীদের অধিকাংশই কিশোর বয়সী। সম্ভ্রান্ত পরিবারের উঠতি বয়সী স্কুল, কলেজ পড়ুয়া ছাত্র থেকে শুরু করে নিম্নবিত্ত, মধ্যবিত্ত শ্রেণির পরিবারের সন্তানদের মাঝে চরম মানবিক অবক্ষয়ের কারনে জঘন্য অপরাধ মুলক কর্মকাণ্ডে সহজেই জড়িয়ে পড়ছে তারা। তাদের উচ্ছৃংখল জীবন যাপনের অভস্ত্যতা থেকে রোধ করে সাধারণ জীবন যাপনের মাধ্যমে মানুষিকতা পরিবর্তনের লক্ষে তাদের চুল দাড়ি কাটা, সহ চাল চলনের ক্ষেত্রে সীমাবদ্ধতা আরোপ করা  হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে মহিলা কলেজ, গালর্স স্কুল চলাকালিন বা ছুটির সময় এ সকল প্রতিষ্ঠানের সামনে দিয়ে কিশোরদের অহেতুক ঘোরাঘুরি করার ক্ষেত্রে। অপ্রাপ্ত বয়সী কিশোরদের শহরে আঁকাবাঁকাভাবে নিয়ন্ত্রণহীন মটর সাইকেল চালানার ক্ষেত্রে। স্কুল, কলেজের শিক্ষার্থীদের সন্ধ্যার পর আড্ডাস্থলে পেলে বা অহেতুক ঘোরাঘুরি করার ক্ষেত্রে তাদেরকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়ার নির্দেশনা প্রদান করে তা কার্যকর করা হচ্ছে। কিছু ক্ষেত্রে পুনরায় অনুরুপ কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার অঙ্গিকারে তাদের অভিভাবকদের অঙ্গিকারনামা বা মুচলেকা নিয়ে পরে ছাড় দেয়া হয়ে থাকে।

পুলিশ মনে করে এ ধরনের বখাটে পনা হেয়ার স্টাইল ও পোষক কিশোরদের মনে, স্বভাব চরিত্রে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। অনেক সময় যা তাদের জীবনাচরণ পাল্টে দেয়। যে কারনে পুলিশের পক্ষ থেকে সেলুন মালিক ও কর্মচারীদের কোন অপ্রাপ্ত বয়স্ক কাউকে রাফ অ্যান্ড টাফ বা বাখাটে স্টাইলে চুল না কাটার জন্য পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে।'

এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার খান মুহাম্মদ রেজোয়ান বলেন, 'তবে ১৮ বছরের উপরে যাদের বয়স তাদের ব্যেক্তি স্বাধীনতায় পুলিশ কোন হস্তক্ষেপ করবে না। প্রতিটি মানুষেরই নিজস্ব পছন্দ ও মতামত রয়েছে। কে কিভাবে চুল কাটবেন বা পোষাক পরবেন, সেটা তার নিজের ব্যাক্তিগত পছন্দের বিষয়। বর্তমান অবস্থায় র্উল্লেখযোগ্য হারে কিশোর অপরাধ প্রবনতা বৃদ্ধির কারনে শুধু অপ্রাপ্ত বয়স্কদের ব্যাপারে এ ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে পুলিশ এবং যার সফলতা অর্জনের ক্ষেত্রে অনেকটা সক্ষম হতে লক্ষ করা যাচ্ছে। জেলার সামাজিক, রাজনৈতিক ব্যেক্তিত্ব, অভিভাবকসহ সাধারণ জেলাবাসী প্রায় সকলেই এ ধরনের সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়ে আসছেন তারা। এ বিষয়ে সকলের সচেতনতা ও একান্ত সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

সভায় এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম, মাগুরা প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক শামিম আহমেদ খানসহ উপস্থিত সাংবাদিক বৃন্দ আনেকে বক্তব্য প্রদান করেন।

ট্যাগ: bdnewshour মাগুরা