banglanewspaper

গাজীপুর প্রতিনিধি : গাজীপুরের শ্রীপুরে এক কৃষক পরিবারে জমি আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জোড়র্পূবক বসতবাড়ি নির্মাণ করে দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার (২৮ আগস্ট) সকালে মাওনা ইউনিয়নের চকপাড়া গ্রামে মাওনা-ফুলবাড়িয়া আ লিক সড়কের পাশে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় চকপাড়া গ্রামের মৃত শামসুল হকের ছেলে কৃষক খলিলুর রহমান বাদী হয়ে ৩জন কে অভিযুক্ত করে শ্রীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযুক্তরা হলেন- একই গ্রামের মৃত আব্দুল বছির উদ্দিনের ছেলে করম আলী সরকার(৫২),এবাদত হোসেন (৬০) ও জুলহাস উদ্দিন সরকার।

থানার অভিযোগে জানা যায়,খলিলুর রহমান পৈত্রিক সূত্রে মালিক হয়ে র্দীঘ দিন ধরে জমিতে বিভিন্ন প্রকার ফলদ ও বনজ গাছপালা লাগিয়ে ভোগ দখলে রয়েছেন। জমিতে অনেক বছর ধরে একটি পারিবারিক কবর স্থান ও রয়েছে। প্রতিপক্ষের লোকজন জমি দখল করার জন্য ১০টি গাতনি দিয়ে ঢালাইয়ের কাজ শুরু করে। পরে আমরা বাঁধা দিলে আমাদের কে প্রাণনাশের হুমকি ও মারধর করে। এ ঘটনায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে শ্রীপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করা হয়।

খলিলুর রহমান বলেন, আমাদের এসএ সমহারে এবং আরএস রেকডে ভ’লবশত জমি কম রের্কড হওয়ায় আমি আদালতে রের্কড সংশোধনের মামলা দায়ের করি। বর্তমানে আদালতে মামলাটি চলমান রয়েছে। জমিতে তারা ইটা বালু দিয়ে চারদিকে সীমানা পিলার দিয়ে বসতবাড়ি নির্মাণের কাজ শুরু করে। পরে আমি আদালতে ১৪৪ ধারা মামলা করলে বিজ্ঞ আদালত জমিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। তারা নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে আমাদের জমিতে কাজ করছে। সকালে জমিতে পুনরায় কাজ করলে আমি শ্রীপুর থানা পুলিশ কে খবর দিলে এসআই জাকির হোসেন গিয়ে কাজ বন্ধের নির্দেশ দিলে ও কিছুক্ষন পর আবার জমিতে কাজ করছে। 

প্রতিপক্ষ জুলহাস উদ্দিন সরকার বলেন আমরা কারো জমি দখল করে বসতবাড়ি নির্মাণ করছি না। আমরা আমাদের বৈধ জমিতে কাজ করছি।

শ্রীপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) লিয়াকত আলী বলেন কেউ আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমিতে কাজ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে খবর পেয়ে একজন পুলিশ অফিসার কে পাঠিয়ে কাজ বন্ধ করা হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour শ্রীপুর