banglanewspaper

খান মো. আসাদ উল্লাহ, ববি প্রতিনিধি: “Save Amazon -Save Earth” প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে মানববন্ধন করেছে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। 

গতকাল ২৮ আগস্ট (বুধবার) সকাল ১০ টায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকের সামনের ঢাকা-কুয়াকাটা মহাসড়কে শিক্ষার্থীরা এ মানববন্ধনের আয়োজন করেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ‘মাহমুদুল হাসান তমাল ‘এবং সিয়াম আহমেদ। তারা বলেন; "আমারা জানি যে , পৃথিবীতে যতটুকু অক্সিজেন আছে তার ২০ শতাংশ আসে আমাজন বন থেকে। প্রতিবছর ২০০ কোটি মেট্রিক টন কার্বন-ডাই-অক্সাইড শোষণ করে এই বন। যে কারণে এটাকে ‘পৃথিবীর ফুসফুস’ বলা হয়। এখানে রয়েছে ৪৫ লাখ প্রজাতির পোকামাকড়, বাস করে তিন শতাধিক উপজাতি। অথচ ‘পৃথিবীর ফুসফুস’ খ্যাত আমাজন আজ হুমকির মুখে। প্রতিনিয়ত অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা এই বনকে পুড়িয়ে ছাই করে দিচ্ছে ।"

আমাজনে গত বছরের তুলনায় এ বছর ৮০ শতাংশ বেশি এবং ২০১৩ সালের তুলনায় দ্বিগুণ আগুন লাগে । এক সংস্থার হিসাব মতে, দাবানলে প্রতি মিনিটে আমাজন প্রায় ১০ হাজার বর্গমিটার এলাকা পুড়ে যাচ্ছে।

বক্তারা আরো বলেন, মানুষের অস্তিত্ব রক্ষার জন্য হলেও ব্রাজিল সরকার সহ বিশ্বনেতৃবৃন্দকে আগুনের হাত থেকে রক্ষার জন্য এগিয়ে আসতে হবে। পরিবেশবাদী সংগঠনগুলোকে আরো কার্যকরী ভূমিকা রাখতে হবে।

উলেখ্য ৭০ লাখ বর্গ কিলোমিটার অববাহিকা পরিবেষ্টিত এই জঙ্গলের প্রায় ৫৫ লাখ বর্গ কিলোমিটার এলাকাটি মূলত আর্দ্র জলবায়ু দ্বারা প্রভাবিত। ৯টি দেশ জুড়ে এই অরণ্য বিস্তৃত। আমাজন জঙ্গলের ৬০ ভাগ ব্রাজিলে, ১৩ ভাগ পেরুতে এবং বাকি অংশ রয়েছে কলম্বিয়া, ভেনেজুয়েলা, ইকুয়েডর, বলিভিয়া, গায়ানা, সুরিনাম এবং ফরাসি গায়ানায়। ব্রাজিলের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা দ্য ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর স্পেস রিসার্চ (ইনপে) জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে বিশ্ব উষ্ণায়নের ফলেই এই বিপুল সংখ্যায় দাবানলে আক্রান্ত হচ্ছে আমাজনের জঙ্গল। এছাড়াও মানব্বন্ধনে অন্যান্য বক্তারা বক্তব্য রাখেন।

উক্ত মানববন্ধনে বক্তারা পরিবেশ , প্রতিবেশ এবং বায়োলজিক্যাল প্লান্ট ডাইভারসিটির জন্য অ্যামাজন রেইনফরেষ্টের গুরুত্ব তুলে ধরেন।

ট্যাগ: bdnewshour আমাজন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়