banglanewspaper

সারাদেশের আদালতের কক্ষে (এজলাসে) দুই মাসের মধ্যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি টাঙানোর নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে দেশের সকল আদালত কক্ষ/এজলাসে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি সংরক্ষণ ও প্রদর্শনে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ ও আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়েছে।

চার সপ্তাহের মধ্যে আইন সচিব, গণপূর্ত সচিব, অর্থ সচিব, সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল ও হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্ট্রারকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

গত ২১ আগস্ট হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিটটি দায়ের করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সুবীর নন্দী দাস।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন রিটকারী আইনজীবী সুবীর নন্দী দাস। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

দেশের প্রতিটি আদালত কক্ষ বা এজলাসে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি সংরক্ষণ ও প্রদর্শনের ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য রিটে নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে প্রতিকৃতি টাঙানোর নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারির আর্জি রয়েছে রিটে।

রিটে বিবাদী করা হয়েছে-আইন সচিব, গণপূর্ত সচিব, অর্থ সচিব, সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল ও হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্ট্রারকে।

আইনজীবী সুবীর নন্দী দাস বলেন, 'সংবিধানের ৪(ক) অনুচ্ছেদে প্রতিটি সরকারি, আধা-সরকারি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি টাঙানোর সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে।’

ট্যাগ: bdnewshour হাইকোর্ট বঙ্গবন্ধু