banglanewspaper

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার জয়রামপুর কাঁঠালতলা গ্রামে পুলিশ ও দুই দল মাদক কারবারির মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে রোকনুজ্জামান রোকন নামে এক মাদক কারবারি নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার রাত আড়াইটার দিকে গ্রামের একটি বাঁশবাগানের মধ্যে এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় এলজি (অগ্নেয়াস্ত্র), দুটি কার্তুজ, এক বস্তা ফেন্সিডিল ও দুটি রাম দা উদ্ধার করার কথা জানিয়েছে পুলিশ। নিহত রোকন দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা দক্ষিণ চাঁদপুরের আবু বক্কর সিদ্দিকীর ছেলে।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার জয়রামপুর কাঁঠালতলা এলাকার একটি বাঁশবাগানে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই দল মাদক কারবারির মধ্যে গোলাগুলি শুরু হয়। খবর পেয়ে পুলিশের একটি টহল দল ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। এ সময় দুই পক্ষই পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। প্রায় আধা ঘণ্টাব্যাপী গুলি বিনিময়ের পর মাদক কারবারিরা পিছু হটে।

পরে ঘটনাস্থল থেকে রোকন নামে এক মাদক কারবারিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এছাড়া ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয় একটি দেশীয় এলজি, দুইটি কার্তুজ, এক বস্তা ফেন্সিডিল ও দুটি রাম দা।
গুলিবিদ্ধ রোকনকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

দামুড়হুদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস জানান, নিহত রোকনের বিরুদ্ধে পুলিশের ওপর হামলা মামলা, মাদক, চোরাচালান, ডাকাতি ও অপহরণসহ ১০টি মামলা রয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 চুয়াডাঙ্গা বন্দুকযুদ্ধ