banglanewspaper

জেলেরা মাছ ধরার জন্য সমুদ্রে দিয়ে খারাপ আবহাওয়ায় অনেক সময় বিপদে পড়েন। কিন্তু কিশোর ইমরান পড়ে গিয়েছিল নিজের অসতর্কতায়। তিনদিন সমুদ্রে ভেসে ছিল ইমরান। সমুদ্রের স্রোত তাকে ভাসিয়ে নিয়ে যায় ভারতীয় সীমানায়। সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে ভারতীয় মৎস্যজীবীরা।

সপ্তাহখানেক আগে ১২ জন মৎস্যজীবীর সঙ্গে ট্রলারে সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়েছিল ইমরান। সমুদ্র থেকে পানি তোলার সময় শরীরের ভারসাম্য হারিয়ে পড়ে যায় ইমরান। এরপর পানির স্রোত তাকে ভাসিয়ে নিয়ে যায়। উত্তাল সমুদ্রে কোন কিছু ছাড়া বেশিক্ষণ ভেসে থাকা প্রায় অসম্ভব। তাই ইমরান বুদ্ধি খাটিয়ে নিজের পরনের লুঙ্গি খুলে তাতে বাতাস ভরে ফুলিয়ে নেয়। তা ধরেই তিন দিন সমুদ্রে ভেসে ছিল বলে জানায় ইমরান।

শনিবার সকালে উদ্ধারকারীরা ইমরানকে রায়দিঘি থানার পুলিশের হাতে তুলে দেয়। এরপর ইমরানকে রায়দিঘি গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

ইমরানকে উদ্ধারকারী ট্রলারের মাঝি মনোরঞ্জন দাস জানান, রায়দিঘি থেকে বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে গিয়ে তারা একজন মানুষকে সমুদ্রে ভাসতে দেখেন। এরপর কাছে যেতেই ইমরানকে তারা দেখতে পান। তড়িঘড়ি করে তাকে উদ্ধার করা হয়। 

মনোরঞ্জন দাস বলেন, আমরা দূর থেকে দেখলাম কি যেন ভাসছে। কাছাকাছি যেতেই দেখি একটি বালক লুঙ্গি ফুলিয়ে সেটা আকঁড়ে আছে। এর পরই ওকে ট্রলারে তুলে নিই আমরা। 

ইমরানের বাড়ি বরগুনা জেলার পাথরঘাটা থানার ঘোরানি গ্রামে। আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ইমরানকে দেশে ফেরানো হবে।

ট্যাগ: bdnewshour24 সমুদ্র ইমরান