banglanewspaper

ভারতের জম্মু-কাশ্মীরের ক্রিকেটারদের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানা গেছে। কাশ্মীর ক্রিকেট দলের অধিনায়ক পারভেজ রসুলসহ তারকা ক্রিকেটারদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না তাদের কোচ মিলাপ মেওয়াদা।

ভারতীয় সাবেক এ তারকা ক্রিকেটার বলেন, গত ৫ আগস্ট কাশ্মীরে যখন জরুরি অবস্থা জারি হয়; তখন আমি বাড়ি চলে গিয়েছিলাম। তারপর থেকে কোনোভাবে কাশ্মীরের ক্রিকেটারদের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করতে পারছি না।

এদিকে জম্মু-কাশ্মীরের ক্রিকেটের পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে কাশ্মীর ক্রিকেট দলের পরামর্শক ইরফান পাঠান কাশ্মীরের তত্ত্বাবধায়ক সি কে প্রসাদ ও জম্মু-কাশ্মীর ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এসএইচ বুখারীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন।

বুখারী জানান, ২৮ আগস্ট স্থানীয় টিভি চ্যানেলগুলোতে বিজ্ঞাপন দেয়া হয়েছে। ক্রিকেটাররা যাতে জম্মুতে একত্রিত হন। শুক্রবার বুখারী জানান, জম্মু-কাশ্মীরের ‘অনূর্ধ্ব-১৬, অনূর্ধ্ব-১৯, অনূর্ধ্ব-২৩ দলের কিছু ক্রিকেটার এসেছেন। আমরা তাদের জম্মুতে নিয়ে যাব।

কাশ্মীরের সাম্প্রতিক ঘটনা প্রসঙ্গে ভারতীয় সাবেক তারকা ক্রিকেটার মিলাপ মেওয়াদা বলেন, ‘গত ২ আগস্ট তিনজন যুবক আমার রুমে এসে বলল যে রাজ্যে মারাত্মক কিছু ঘটতে যাচ্ছে। এবং তাদের বাবা-মা খুব দুশ্চিন্তায় আছেন।’

ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে মিলাপ আরও বলেন, ‘আসলে এ ঘটনার আগে থেকেই খেলোয়াড়রা চাপের মধ্যে ছিল। যারা আমাদের ক্যাম্পে অনুশীলন করে তাদের বয়স ১৭-১৮ বছর হবে। এই ছেলেদের বাবা-মা সন্তানের জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন।


 

প্রসঙ্গত, ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের জনগণ সাংবিধানিকভাবে যে বিশেষ মর্যাদা পেত, গত ৫ আগস্ট সেটি বাতিল করে দেয় নরেন্দ্র মোদির সরকার। ভারতের সংবিধান থেকে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা সংক্রান্ত ৩৭০ ধারা বাতিল করে দেয়ার কারণে জম্মু-কাশ্মীরের মুসলিম পরিবারগুলো নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। অনেকেই এলাকা ছেড়ে দিচ্ছেন।
 

ট্যাগ: bdnewshour24 কাশ্মীর