banglanewspaper

সোমবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া আখাউড়া থানায় এক প্রেমিক জুটির বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। গোপনে দেখা করার সময় আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ে এই প্রেমিক যুগল। পরে উভয় পক্ষের অভিভাবকদের উপস্থিতিতে চার লাখ টাকা কাবিন ধার্য করে কাজী ডেকে বিয়ে দেয়া হয় এই প্রেমিক-প্রেমিকার।   

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আখাউড়া উপজেলার হীরাপুর গ্রামের বাছির খন্দকারের ছেলে তোফাজ্জল খন্দকার (২১) ও নুরপুর (লামারবাড়ি) গ্রামের মাসুদুর রহমান মাসুদের মেয়ে মাইশা মনি মেঘলা (১৮)। তাদের মধ্যে দীর্ঘ ৫ বছর ধরে সম্পর্ক চলছে।  

এ ব্যাপারে মেয়ের খালা শাহারা খাতুন বলেন, মেঘলা আমার বড় বোনের মেয়ে। কিছুদিন আগেই সে আমার বাড়িতে বেড়াতে আসে। আর এই খবর পেয়ে সন্ধ্যায় তোফাজ্জল মেঘলা সাথে দেখা করতে আসে। ঠিক তখনই আপত্তিকর অবস্থায় এই প্রেমিক যুগলকে আটক করেছে স্থানীয়রা। তখন এলাকার লোকজনসহ জনপ্রতিনিধিরা রাত ১১ টায় মেঘলা ও তোফাজ্জলকে বিয়ে দেয়ার ব্যাপারে সমঝোতার চেষ্টা করলেও তোফাজ্জলের পরিবার সেটি বাধা দেয়। পরে থানায় খবর দিলে এসআই দেলোয়ারসহ আরো কয়েকজন পুলিশ সদস্য এসে তাদের দুজনকে থানায় নিয়ে যায়। অবশেষে রাতেই প্রেমিক যুগলকে আখাউড়া থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রসুল আহমদ নিজামী বলেন, এলাকার স্থানীয় লোকজন ও জনপ্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে ও দু’পক্ষের পরিবারের লোকজনের সম্মতিক্রমে চার লাখ টাকা দেনমোহরে তাদের শুভবিবাহ সম্পন্ন হয়। আখাউড়া পৌরসভার মাওলানা কাজী কেফায়েতুল্লাহ মাহমুদী এই বিয়ের নিকাহ রেজিস্টার। পরে উপস্থিত সবাইকে মিষ্টি দিয়ে আপ্যায়ন করে নব দম্পতির জন্য সবাই দোয়া প্রার্থনা করেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 প্রেমিক