banglanewspaper

মাগুরা প্রতিনিধি: মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতাল থেকে চোর চক্রের সক্রিয় ৪ নারী সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (২ আগস্ট) সকালে হাসপাতালের বহির্বিভাগের টিকেট কাউন্টারের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়।    

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, সদর হাসপাতাল ক্যাম্পাসে চিকিৎসা নিতে আসা রোগী ও তাদের স্বজনদের টাকা পয়সা মোবাইল ফোন, গায়ের গহনাসহ মূল্যবান জিনিসপত্র চুরির ঘটনা অনেক আগে থেকে শোনা গেলেও সম্প্রতি সময়ে তা প্রকট আকার ধারণ করে। প্রায় প্রতইদিনই একাধিক ভুক্তভোগী এ ধরনের ঘটনার শিকার হতে শোনা যায়। এ সকল চুরির ঘটনায় জড়িত সক্রিয় চোর, পকেটমার চক্রের সদস্যরা অধিকাংশই নারী। যে কারণে সবার মাঝে অবাধ বিচরনের সুযোগ কাজে লাগিয়ে সহজেই মূল্যবান সামগ্রী হাতিয়ে নিলেও তাদের চিহ্নিত বা রোধ করার বিষয়টি কঠিন হয়ে পড়ে।

এই চোর চক্রের সক্রিয় সদস্যরা হাসপাতালে অবস্থান করা রোগীসহ স্বজনদের বেডে থেকে এবং বহির্বিভাগে টিকেট কাউন্টারসহ আউটডোরে ডাক্তার চেম্বারের সামনে লাইনে দাঁড়িনো ভিড়ের মাঝে মহিলাদের সাথে থাকা মূল্যবান সামগ্রী মূহুর্তের মধ্যে হাতিয়ে নেয়।

ঘটনার দিন সোমবার হাসপাতালের বহির্বিভাগে চিকিৎসা নিতে আসা লাইনে দাঁড়ানো অন্যান্য রোগীদের ভিড়ের মাঝে মিশে তাদের ব্যাগ থেকে টাকা হাতিয়ে নেয়ার সময় ভুক্তভোগী ওই রোগী বুঝতে পেরে চিৎকার দিলে হাতেনাতেই ধরা পড়েন তারা।

আটক চোর চক্রের ৪ নারী হলেন- মধুখালী উপজেলার বাগাট এলাকার সাগর মোল্যার স্ত্রী সেলিনা খাতুন তার মেয়ে মরিয়ম, একই গ্রামের সেন্টু মোল্যার মেয়ে রুখসানা এবং মাগুরা মহম্মদপুর উপজেলার বেথুলিয়া এলাকার মিন্টু মিয়ার স্ত্রী অঞ্জনা খাতুন। 

মাগুরা সদর থানা পুলিশ জানায়, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে হাসপাতালের বহির্বিভাগের লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা একজন রোগীর ভ্যানিটি ব্যাগ থেকে তারা কৌশলে টাকা চুরি করাকালীন সময় বিষয়টি বুঝতে পেরে ওই রোগী চিৎকার দিলে সেখানে থাকা লোকজনসহ হাসপাতালের কর্মচারীরা এসে তাদের আটক করে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ তাদের আটক করে। 

সম্প্রতি সময়ে হাসপাতালে চুরির ঘটনার বেশকিছু খবর জানা গেছে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে চুরির অপরাধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 মাগুরা