banglanewspaper

দক্ষিণ আফ্রিকায় বিদেশিদের দোকানপাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হানা দেওয়ার ঘটনা ব্যাপক হারে বেড়েছে। এ সংক্রান্ত সংঘাত এতই বেড়ে গেছে যে, দেশটির প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা এর নিন্দা জানিয়ে নাগরিকদেরকে সতর্ক করে একটি ভিডিওবার্তা প্রকাশ করেছেন।

গত সোমবারই রাজধানী জোহানেসবার্গে এ ধরনের অপরাধে কয়েক ডজন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবারও জোহানেসবার্গের আলেক্সান্দ্রায় এমন বেশ কয়েকটি ঘটনার খবর মিলেছে। বিবিসির প্রতিবেদনে থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

সংবদ্ধ হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার কিছু লোকজন বিদেশিদের দোকানপাটে হামলা করছে। বিদেশি চালকদের চালানো লরি কাভার্ডভ্যান জ্বালিয়ে দিচ্ছে। বিষয়টি অনেকটা দাঙ্গার পর্যায়ে চলে গেছে। কয়েকদিনে এসব ঘটনায় পাঁচজন নিহতের খবর পাওয়া গেছে।

‘এখানে বিদেশিরা বহু মিথ্যা অভিযোগ ও অপবাদ মাথায় নিয়ে ঘোরেন। দোকানপাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা শুধুমাত্র অপরাধমূলক ঘটনা নয়, এগুলো বিদ্বেষমূলক,’ নিজের দোকান লুটপাটকারীদের টার্গেটে পড়া নাইজেরিয়ার এক ব্যবসায়ী বিবিসিকে এসব কথা বলেন।

এমন পরিস্থিতিতে আশপাশের কয়েকটি আফ্রিকান দেশও দক্ষিণ আফ্রিকায় অবস্থানরত তাদের নাগরিকদের উদ্দেশে সতর্কবার্তা জারি করেছে। এদিকে বিশেষ বিবৃতিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে শক্তভাবে এসব দমনের আহ্বান জানিয়েছে আফ্রিকান ইউনিয়ন (এইউ)।

প্রেসিডেন্ট রামাফোসা মঙ্গলবার টুইটারে পোস্ট করা ভিডিওতে বলেন, ‘বিদেশিদের পরিচালিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা করা কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। দক্ষিণ আফ্রিকায় আর এটা হতে দেওয়া যাবে না। আমাদের কোনো নাগরিক বিদেশিদের ওপর হামলা চালাবে, এটা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। আমি অতিসত্ত্বর এই পরিস্থিতির অবসান চাই।’

ট্যাগ: bdnewshour24 দ. আফ্রিকা