banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি: হাসপাতালের পুরাতন বিলবোর্ড  বিক্রি, অ্যাম্বোলেন্সের যন্ত্রাংশ খোয়া, নিয়মবহির্ভূত ভাবে গাছ কর্তন ও সরকারি বরাদ্দে অফিসের মোটরসাইকেল বাড়ির কাজে ব্যবহারসহ একাধিক অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে।

বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে হাসপাতালে গিয়ে এমনসব অভিযোগ সম্পর্কে জানা যায়। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কর্মচারী জানান, দুটি গাছ কাটার কথা বলে হাসপাতালের পুরাতন একাধিক গাছ কেটে নেয়া হয়েছে। এদিকে,গাড়ি রাখার নির্দিষ্ঠ স্থান হতে লকার ভেঙ্গে পুরাতন অ্যাম্বোলেন্সের যন্ত্রাংশ খুলে নেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে এ বিষয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এছাড়াও গত ২২ আগস্ট হাসপাতালের সামনে থাকা বিলবোর্ড গুলো মাওনা এলাকার একটি ভাঙ্গারীর দোকান থেকে উদ্ধার করেছে শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক (এস আই) আমিনুল ইসলাম। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের চিঠির মাধ্যমে বিলবোর্ড গুলো হাসপাতালে ফিরিয়ে দেয়া হয় বলে জানায় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত আলী। 

উপরোক্ত বেশীর ভাগ ঘটনা গুলোর হাসপাতালের   অফিসের প্রধান সহকারীর যোগসাজশ থাকার অভিযোগ উঠেছে। 

তবে, এমন অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান সহকারী জালাল উদ্দিন জানান, গাছ বিক্রির বিষয়টি সঠিক নয়। দুইটি গাছ অনুমতি সাপেক্ষে বিক্রি করা হয়েছে। সাইনবোর্ড বিক্রির সাথে আমি জড়িত না। আমার চাকরির শেষ সময় চলছে। একজন সহকর্মী ব্যক্তিগত বিরোধিতার কারণে আমার বিরুদ্ধে এমন অপবাদ তুলছে। আমাকে এখান থেকে সরিয়ে তিনি আমার পদে বসতে চান। বিভিন্ন সময় তিনি আমাকে হুমকি দিয়েছেন। সম্প্রতি আমাকে তিনি মারতে এসেছিলেন। আমি এ বিষয়ে থানায় জিডি করেছি। এসব অভিযোগ তিনি উদ্দেশপ্রনেদিত হয়ে আমার বিরুদ্ধে তুলছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মইনুল হক খান জানান, আমি শারীরিক অসুস্থ্য থাকায় ছুটিতে রয়েছি। এসকল বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আরএমও বিস্তারিত  বলতে পারবেন।

তবে,উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ফতেহ আকরাম এ বিষয়ে কোন কথা বলতে রাজি হননি। 

গাজীপুর জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ খায়রুজ্জামান জানান, বিলবোর্ড উদ্ধারের ঘটনা আমি শুনেছি। তবে বিলবোর্ড বিক্রির প্রক্রিয়া যথাযথ ভাবে হয়নি। আর অ্যাম্বোলেন্সের যন্ত্রাংশ খোয়া যাওয়ার বিষয় তদন্ত কমিটির বক্তব্য হাতে পেয়ে বিস্তারিত জানাতে পারবেন এবং হাসপাতালের সামনে থেকে দুটি গাছ কাটার বিষয় সম্পর্কে তিনি অবগত রয়েছেন বলেও জানান তিনি। 

ট্যাগ: bdnewshour24 শ্রীপুর