banglanewspaper

প্রতিপক্ষের মাঠে বৃহস্পতিবার ‘এফ’ গ্রুপের পঞ্চম রাউন্ডে ২-১ গোলে জিতেছে শেষ দিকে এক জন কম নিয়ে খেলা স্পেন।

ম্যাচের শুরু থেকে রোমানিয়ার রক্ষণকে চেপে ধরা স্পেন এগিয়ে যেতে পারতো প্রথম মিনিটেই। তবে স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড পাকো আলকাসেরের দুরূহ কোণ থেকে নেওয়া শট দারুণ নৈপুণ্যে ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক সিপরিয়ান তাতারুসানু। একাদশ মিনিটে আবারও গোলরক্ষকের দৃঢ়তায় গোলবঞ্চিত তিনবারের ইউরোপ চ্যাম্পিয়নরা।

২৯তম মিনিটে ডিফেন্ডার রামোসের সফল স্পট কিকে এগিয়ে যায় অতিথিরা। সম্প্রতি রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ধারে আর্সেনালে যোগ দেওয়া মিডফিল্ডার দানি সেবাইয়োস ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টিটি পায় তারা। জাতীয় দলের হয়ে অধিনায়ক রামোসের এটি ২১তম গোল।

এই গোলের আগে ও পরে গোলরক্ষক তাতারুসানুর আরও দুটি দারুণ সেভে বিরতির আগে ব্যবধান আর বাড়েনি।

পাসিং ফুটবলের পসরা মেলে ধরে গড়া আক্রমণে দ্বিতীয়ার্ধের দ্বিতীয় মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে সবশেষ ২০১২ সালে ইউরো জয়ীরা। বাঁ থেকে জর্দি আলবার পাস ছোট ডি-বক্সের বাইরে পেয়ে অনায়াসে জালে ঠেলে দেন চলতি মৌসুমে এরই মধ্যে বরসিয়া ডর্টমুন্ডের হয়ে চার গোল করা আলকাসের।

কোণঠাসা হয়ে পড়া রোমানিয়া ৫৯তম মিনিটে ফরোয়ার্ড ফ্লোরিন আন্দোনের হেডে ব্যবধান কমায়। ৭৯তম মিনিটে পাল্টা আক্রমণে ছুটে যাওয়া রোমানিয়ার ফরোয়ার্ড পুসকাসকে ডি-বক্সের মুখে ফাউল করে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন স্পেনের ফের্নান্দো লরেন্তে।

বাকি সময়ে প্রতিপক্ষ শিবিরে এক জন কম থাকায় ম্যাচে ফেরার ভালো সম্ভাবনা তৈরি হয় স্বাগতিকদের।

ট্যাগ: bdnewshour24 স্পেন