banglanewspaper

মনির হোসেন জীবন, নিজস্ব প্রতিনিধি: মহান মুক্তিযুদ্ধে অনন্য অবদানের জন্য 'স্বাধীনতা পদক'-এ ভূষিত করা হয়েছে সরকারের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও গাজীপুর-১ আসনের সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডভোকেট আ.ক.ম মোজাম্মেল হক-এমপিকে। তবে বরাবরের ন্যায় জনবান্ধব এই নেতা নিজের কৃতিত্বের পুরষ্কার 'স্বাধীনতা পদক' উৎসর্গ করেছেন গাজীপুর-১ আসনের সর্বস্তরের জনগণকে।

মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রথম সশস্ত্র প্রতিরোধের মহানায়ক, সংগঠক বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডভোকেট আ.ক.ম মোজাম্মেল হক-এমপিকে 'স্বাধীনতা পদক' এ ভূষিত করায় গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে এক গণসংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। ওই গণসংবর্ধনায় উপস্থিত হয়ে তিনি নিজের কৃতিত্বের পুরষ্কার জনগণকে উৎসর্গ করে ইতিহাসের স্বাক্ষী হয়ে থাকলেন।

গতকাল (০৭ই সেপ্টেম্বর, শনিবার) বিকেলে কালিয়াকৈর বাজার বাস টার্মিনালে কালিয়াকৈর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুরাদ কবীরের সভাপতিত্বে ও গাজীপুর জেলা আ'লীগের প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক এবং কালিয়াকৈর পৌরসভার মেয়র প্রার্থী সিকদার জহিরুল ইসলাম জয়-এর সঞ্চালনায় গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত হয় জেলা, উপজেলা ও পৌর আ'লীগ ও অঙ্গসংগঠনের প্রায় অর্ধলক্ষাধিক নেতা-কর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষজন।

সরকারের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী, গাজীপুর-১ আসনের সাংসদ, গাজীপুর জেলা আ'লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডভোকেট আ. ক. ম মোজাম্মেল হক এমপি তার বক্তব্যে বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে অনন্য অবদানের জন্য আমাকে “স্বাধীনতা পদকে” ভূষিত করা হয়েছে। এই সম্মাননা তখনই কাজে লাগবে, সবাই মিলে যখন কালিয়াকৈরকে সর্বশ্রেষ্ঠ উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলতে পারবো। এই সম্মাননা শুধু আমার নয়, এই সম্মাননা আমি কালিয়াকৈর ও গাজীপুর বাসীর জন্য উৎসর্গ করলাম।

এসময় তিনি আরো বলেন, ১৯৬২ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর হাত ধরেই ছাত্রলীগে যোগদান করেছিলাম। বঙ্গবন্ধুর আদর স্নেহ আজও ভুলতে পারিনি। তাই লোভ-লালসা বাদ দিয়ে আজও বঙ্গবন্ধুর কর্মী হয়ে রয়েছি। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সাথে কখনো বিশ্বাস ঘাতকতা করিনি। আজ দেশ যত উন্নয়ন হয়েছে, বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে দেশ আরো অনেক আগেই এই উন্নয়ন হয়ে যেতো।

গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি মেহের আফরোজ চুমকি, গাজীপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. রিনা পারভীনসহ আরো অনেকেই।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কালিয়াকৈর উপজেলা শ্রমিক লীগের যুগ্ম-আহবায়ক ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রুবেল পারভেজ, কালিয়াকৈর পৌর ছাত্রলীগের আহবায়ক আব্দুল্লাহ আল মামুন (সবুজ)সহ জেলা, উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষজন।

এর আগে বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীকে ফুলের তোরা ও ক্রেস্ট দেওয়া হয়। পরে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন সংসদ সদস্য ও দেশবরেণ্য শিল্পী মমতাজ বেগমসহ অন্যান্য শিল্পীবৃন্দ।

ট্যাগ: bdnewshour24 মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী