banglanewspaper

শেষদিন সকাল সোয়া এগারোটায় স্টেডিয়ামের আকাশে কড়া রোদের ঝিলিক। বৃষ্টি ঝরাও থেমে গেলো। আরো খানিকক্ষণ বাদে মাঠ পরিচর্যার জন্য মাঠ কর্মীরা মাঠে নামলেন। সুপার সাপার দিয়ে পিচ কাভারের ওপর জমে থাকা পানি পরিস্কারের কাজ চললো। উইকেটে যাতে পানি না পড়ে সেজন্য বেশ সতর্কতার সঙ্গে কাজ করলেন তারা। প্রায় ৩০ জনের মতো স্থানীয় মাঠ কর্মীরা এই পরিচর্যার কাজে জড়িত ছিলেন। মাঠের প্রধান পিচ কিউরেটর প্রবীন হিঙ্গানিকার মাঠ প্রস্তুতের পুরো এই প্রক্রিয়া তদারকি করেন। সঙ্গে ছিলেন বিসিবির আরেক কিউরেটর জাহিদ রেজা বাবু।

মাঠে এই সময় আরেকজন ছিলেন। তিনি বিদেশি। মাথায় লাল টুপি। হাফপ্যান্ট পরা। গায়ে আফগানিস্তানের প্র্যাকটিস দলের জার্সি। খোঁজ নিয়ে জানা গেলো তিনি আফগানিস্তান টিম ম্যানেজমেন্টের এক সদস্য।

- তো মাঠে তিনি কি করছেন?

যা করছিলেন তার নাম পাহারা দেয়। তার নাম গোয়েন্দা নজরদারি!

মাঠ কর্মীরা ঠিকমতো কাজ করছে কিনা- সেটা পাশে দাড়িয়ে দেখলেন আফগান টিম ম্যানেজমেন্টের এই সদস্য। হ্যাঁ, মাঠ পরিচর্যার পুরোটা সময় জুড়েই তিনি মাঠে দাড়িয়ে দেখলেন। তীক্ষè নজর মাঠ কর্মীদের কাজে। কিভাবে পিচের কাভার তোলা হচ্ছে। পানি কিভাবে সরানো হচ্ছে। কাভার সরানোর সময় উইকেটে পানি ঢুকছে কিনা? এমনসব বিষয়ের দিকে কড়া নজর রাখেন লালটুপি পরা সেই আফগানি!

কখনো দূরে দাঁড়িয়ে। কখনো একেবারে কাছে ঘেঁষে। দুই হাত পেছনে। কিন্তু কড়া নজর মাঠ কর্মীদের ওপর। এতো লম্বা সময় মাঠে দাড়িয়ে থাকতে তার কষ্টও হচ্ছিলো। পরে তিনি মাঠে থাকা রোলারের ওপর বসে মাঠ কর্মীদের কাজেও গোয়েন্দা নজর রাখেন। আফগান দলের এই ‘গোয়েন্দার’ সঙ্গে খানিকবাদে আরও দুজন এসে যোগ দেন।

মাঠের দিকে আফগানিস্তানের অতিরিক্ত এই নজরদারির কারণটা খুবই স্পষ্ঠ। সম্প্রতি বাংলাদেশ সফরে আফগান ‘এ’ দলের বিকেএসপিতে একটি ম্যাচ বৃষ্টিতে বাতিল হয়েছিলো। আফগান দল অভিযোগ করেছিলো সেই ম্যাচে বৃষ্টির পানি সরাতে গিয়ে মাঠ কর্মীরা ইচ্ছে করে উইকেট ভিজিয়ে ফেলেছে! যাতে খেলা আর না হয়- সেজন্যই এমন অপকর্ম। সেই ম্যাচে আফগানিস্তান একেবারে জয়ের দ্বারপ্রান্তে ছিলো। কিন্তু বৃষ্টিতে ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত বাতিল হয়ে যায়। বিকেএসপির সেই ম্যাচের পরে আফগান ‘এ’ দলের অধিনায়ক আনুষ্ঠানিকভাবে তার ক্যাপ্টেন্স রিপোর্টে অভিযোগে জানান-মাঠ কর্মীরা ইচ্ছে করেই অমন অপকর্ম করেছে!

বিকেএসপির সেই ঘটনা থেকে ‘শিক্ষা’ নেয় আফগানিস্তান। চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম খেলার উপযোগী করতে মাঠ কর্মীরা যাতে কোনো অবহেলা না করেন সেদিকে কড়া নজরদারি দেয় আফগানিস্তান টিম ম্যানেজমেন্ট।
 
তবে চট্টগ্রাম টেস্টের মাঠ প্রস্তুতিতে মাঠকর্মীদের চেষ্টায় গাফিলতির কোনো চিহ্নই মেলেনি।

ট্যাগ: bdnewshour24