banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, বিশেষ প্রতিনিধি: ঘরের বারান্দার সিড়িতে বসে নেশা সেবনের বিশেষ অঙ্গ ভঙ্গি প্রদর্শন করে সিগারেট টান দেয়ার দৃশ্য দেখা যায় একটি ফেসবুক লাইভে। এ নিয়ে বিব্রতকর অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে অনেক ব্যবহারকারীদের মধ্যে। 

১০ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার দুপুর ২.৪৫ মিনিটে  "এমডি হাবিব আদনান"-নামক আইডি থেকে এমন একটি লাইভ চলে।

ফেসবুক আইডিটি ঢাকা বিভাগের টাঙ্গাইল জেলার ঠিকানা দেয়া হয়েছে। 

সামাজিক বিশ্লেষকদের মতে, ধূমপানের মতো ক্ষতিকর একটি বিষয়কে গুরুত্বপূর্ণ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রদর্শন করা কোন ভাবেই সমর্থন যোগ্য নয়। এমন দৃশ্য দেখে কোমলমতি শিশুদের মধ্যে মাদকের আগ্রহ জাগ্রত হতে পারে। তাই যথাযথ কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি নজরে আনার অনুরোধ জানান তারা।

মেডিসিন বিশেষজ্ঞদের মতে,  তামাক মূলত হৃৎপিণ্ড, লিভার ও ফুসফুসকে আক্রান্ত করে। ধূমপানের ফলে হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক, ক্রনিক অবস্ট্রাকটিভ পালমোনারি ডিজিজ (COPD) (এমফাইসিমা ও ক্রনিক ব্রংকাইটিস সহ), ও ক্যান্সারের ঝুঁকি বহুগুণ বাড়ায়। তামাকের কারনে উচ্চ রক্তচাপ ও প্রান্তীয় রক্তনালীর রোগ দেখা দিতে পারে।

এদিকে,পরিবেশ থেকে প্রাপ্ত তামাকজাত ধোঁয়া ও পরোক্ষ ধূমপানও সকল বয়সী ব্যক্তির ক্ষেত্রে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে। এরমধ্যে  গর্ভবতী নারী ও শিশুদের  উপর তামাকের ব্যাপক ক্ষতিকর প্রভাব রয়েছে। ধূমপায়ী নারীদের ক্ষেত্রে গর্ভপাত ঘটার হার বেশি। এছাড়া গর্ভস্থ ভ্রূণেরও অনেক ক্ষতি করে যেমন অকালে শিশুর জন্ম হওয়া, জন্মের সময় নবজাতকের ওজন আদর্শ ওজনের তুলনায় কম হওয়া।  এছাড়াও অধূমপায়ীদের তুলনায় ধূমপায়ীদের ক্ষেত্রে যৌন দুর্বলতার সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার হার ৮৫% বেশি বলেও জানান তিনি।

গাজীপুরের আব্দুল আউয়াল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের সমাজকর্ম বিষয়ের অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান ফরহাদ তালুকদার জানান, নেশা তরুণ সমাজকে ধ্বংশের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। ফেসবুক লাইভে এসে এভাবে ধুমপানের দৃশ্য দেখানো হলে অন্যরাও এর প্রতি ঝোঁকতে পারে এবং এতে সামাজিক ব্যাধিতে পরিনত হতে পারে  বলেও জানান তিনি। 

এ বিষয়ে অ্যাডভোকেট আদিলুর রহমান আদিল জানান, ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০০৫-এর ধারা ৫ (১)-এর (ঙ)তে বলা আছে, বাংলাদেশে প্রস্তুতকৃত বা লভ্য ও প্রচারিত, বিদেশে প্রস্তুতকৃত কোন সিনেমা, নাটক বা প্রামাণ্য চিত্রে তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহারের দৃশ্য টেলিভিশন, রেডিও, ইন্টারনেট, মঞ্চ অনুষ্ঠান বা অন্য কোন গণমাধ্যমে প্রচার, প্রদর্শন বা বর্ণনা করিবেন না বা করাইবেন না।

কোনও ব্যক্তি এই ধারার বিধান লঙ্ঘন করিলে তিনি অনূর্ধ্ব তিন মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড বা অনধিক এক লক্ষ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডনীয় হইবে এবং উক্ত ব্যক্তি দ্বিতীয়বার বা পুনঃ পুনঃ একই ধরনের অপরাধ সংঘটন করিলে তিনি পর্যায়ক্রমিকভাবে উক্ত দণ্ডের দ্বিগুণ হারে দণ্ডনীয় হইবেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 ফেসবুক সিগারেট