banglanewspaper

পশ্চিমবঙ্গে নাগরিকপঞ্জি হবেই। গতকালই কলকাতায় গিয়ে এমন দাবি করেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। এদিকে দিল্লিতে বিজেপি সভাপতি ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে বসার ঠিক আগে একই দাবি তুলেছেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় রিসার্চ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ‘সেভ বেঙ্গল’ নামে একটি আলোচনা সভায় তিনি বলেন, ‘আসামের মতো পশ্চিমবঙ্গেও এনআরসি হবে। এতে প্রায় দু’কোটি মানুষ বাদ যাবে। বিদেশি নাগরিকরা এসে রাজ্য আর দেশের সম্পদ নষ্ট করছে। তা রুখতেই এনআরসি প্রয়োজন।’

তবে পশ্চিমবঙ্গে এনআরসির বিরোধী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। তিনি এর বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এ বিষয়ে দিলীপ ঘোষ কটাক্ষ করে বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রীর পুরনো অভ্যাস কিছু হলেই রাস্তায় নেমে পড়া। বাড়িতে থাকতে পারেন না। সেই অভ্যাস বজায় রাখতেই তিনি রাস্তায় নামছেন। ২০২১ সালের পরে তো রাস্তায় নামতেই হবে। তবে যেই রাস্তায় নামুক, পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হবেই।

চলতি বছরের লোকসভা নির্বাচনে জঙ্গলমহল ও উত্তরবঙ্গে ভাল ফলাফল করলেও কলকাতা ও এর কাছাকাছি এলাকায় ফল ভাল হয়নি বিজেপির। এখনও দেখা যাচ্ছে কলকাতা, দুই ২৪ পরগনা, হাওড়ায় সদস্য আশানুরূপ ভাবে বাড়ছে না।

এই সমস্যা কাটাতে বিকল্প পথ খুঁজছে দল। প্রার্থী তালিকা তৈরির কাজও দ্রুত শুরু করতে চায় বিজেপি। ঠিক হয়েছে, প্রতি মাসে রাজ্যে সাংগঠনিক প্রস্তুতির পর্যালোচনা হবে।

ট্যাগ: bdnewshour24 পশ্চিমবঙ্গ