banglanewspaper

ভোলা প্রতিনিধি: ভোলার চরফ্যাসনে অনির্বাণ ক্যাডেট স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানীর ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত শিক্ষক মোতালেবসহ স্কুলের পরিচালক অসিত কুমার জয়ধরলুককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৬সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে প্রধান অভিযুক্ত শিক্ষক মোতালেব ও রবিবার বিকালে স্কুল পরিচালক জয়ধরলুককে গ্রেপ্তার করা হয়।

চরফ্যাসন থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) ও মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা আঃ আজিজ জানান, গত ১৪ সেপ্টেম্বর শনিবার অনির্বানে সান্ধ্যকালিন ক্লাস শেষে শিক্ষক মোতালেব সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী (১৩) কে জোড় পূর্বক শ্লীলতাহানী করে। ভিকটিমের ডাকচিৎকারে পথচারিরা এগিয়ে আসলে অভিযুক্ত শিক্ষক মোতালেব কৌশলে পালিয়ে যায়।

লম্পট শিক্ষকের বিষয়টি ছাত্রী তার বাবা-মাকে জানালে রবিবার সকালে অনির্বাণের পরিচালক অসিত কুমার জয়ধরলুককে ছাত্রীর অভিভাবক অবহিত করে। অভিযুক্ত শিক্ষক মোতালেবের বিরুদ্ধে পরিচালক অসিত কুমার জয়ধরলুক কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করে লম্পট শিক্ষককের পক্ষে অবস্থান নিয়ে তাকে পালিয়ে যেতে সহযোগিতার করে।

তবে পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে অভিযুক্ত লম্পট শিক্ষক মোতালেবকে চরফ্যাসন বাজার থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

চরফ্যাসন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শামসুল আরেফিন জানান, ভিকটিমের বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে রোববার বিকেলে অনির্বাণের পরিচালকে ও সোমবার সকালে প্রধান অভিযুক্ত শিক্ষক মোতালেবকে আটক করা হয়। থানায় শ্লীললতাহানির অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে অভিযুক্ত শিক্ষক ও অনির্বাণের পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন বলেন, এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়ের করতে নিদের্শ দেওয়া হয়েছে। সান্ধ্যকালিন স্কুলগুলোতে ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনার যাতে পুনরাবৃত্তি না ঘটে সে ব্যাপারে সকল সচেতন অভিভাবকদের নজর রাখতে হবে।

ট্যাগ: bdnewshour24 ছাত্রী যৌন হয়রানি