banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর(গাজীপুর) প্রতিনিধি: বাবার অনত্র বিয়ে। হতদরিদ্র মায়ের সংসার। রসমালাই খাওয়ার আবদার ছিলো মায়ের কাছে। সামনের মাসে বেতন পেয়ে রসমালাই কিনে দিবে বলে জানিয়েছিল মা। ঘরের পান্তা ভাত খেয়ে স্কুলে যাওয়ার কথা জানিয়ে মা চলে যায় কারখানায়। কিন্তু সে রসমালাই খাওয়ার ইচ্ছেই কাল হলো গাজীপুরের শ্রীপুরে ৪র্থ শ্রেনীতে পড়ুয়া ১০ বছর বয়সী মায়ার। রসমালাই না পেয়ে আম গাছে উড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে জানায় পুলিশ। 

২১ সেপ্টেম্বর শনিবার সকালে উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের ধনুয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

নিহত মায়া (১০) উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের ধনুয়া গ্রামের হাবিবুর রহমান হবির মেয়ে। সে ধনুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেনীর শিক্ষার্থী ছিলো।

স্বজনদের বরাত দিয়ে শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) মেনহাজ উদ্দিন জানান, স্বামীর সাথে বিবাহ বিচ্ছেদের পর হালিমা খাতুন মায়াকে নিয়ে বাপের ভিটায় শৈলাট মেডিকেল মোড় এলাকায় থেকে জৈনা এলাকার একটি কারখানায় চাকরি করতো। গত কয়েকদিন ধরেই মায়া রসমালাই খাবে বলে মায়ের কাছে বায়না ধরে। এ নিয়ে মায়ের সাথে অভিমান করে শিশু মায়া গত দুদিন ধরে কিছু খেতে চায়নি বলে জানা যায়। শনিবার সকালে বাড়ীর পাশের (ওয়ারেছ মেম্বারের পুকুর পাড়ের) একটি আম গাছে উড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে মায়া। পরে তার লাশ ঝুলতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়া হয়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল হতে লাশ উদ্ধার করে।  তবে পরিবারের কোন অভিযোগ না থাকায় আবেদনের ভিত্তিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয় বলেও জানান তিনি।
 

ট্যাগ: bdnewshour24 শ্রীপুর