banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ গাজীপুরের শ্রীপুরে দলিল মূলে বায়না করা জমিতে জোরপূর্বক বাড়ী নির্মানের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে বায়নাকারী দুলাল মোল্লা শ্রীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সে অভিযোগে শ্রীপুর পৌর এলাকার মোসলেম উদ্দিনের ছেলে রমজান আলী ও মৃত মোহাব্বত আলীর ছেলে আমির হোসেনকে অভিযুক্ত করা হয়।

দুলাল মোল্লা ও থানায় দেয়া অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, ৪৩নং শ্রীপুর মৌজার আর এস খতিয়ান নং-৮০ এর দাগ নং-৪৪৬৬ -তে ৯.৬৫ শতাংশ জমি গত ২০১৩ সালের ৯ জানুয়ারী শ্রীপুর সাবরেজেষ্ট্রি অফিসে গিয়ে ৪১৭ নং দলিল মূলে বায়না সুত্রে মালিক হয় দুলাল গং।

সেখানে দেখা যায়, জমির মূল মালিক আঃ সামাদ খান রেকর্ড মূলে জমি ভোগ দখল করে মৃত্যু বরণ করলে তার সন্তানগন ওয়ারিশ সুত্রে মালিক হয়। পরবর্তীতে বিজ্ঞ আদালতে বন্টননামার মামলা হলে তা নিষ্পত্তি হয়ে রায় দেয় আদালত। উক্ত রায়ে সামাদ খানের কন্যা সুফিয়া আক্রাম তিনের এক অংশ ( ⅓) ২৮ শতাংশ জমির মালিক হয়ে আমাদের সাথে দলিল মূলে বায়না করে। কিন্তু উপরোক্ত বিবাদী জোরপূর্বক জমি দখল করে বাড়ী নির্মান করতে থাকে।

বিষয়টি পৌরসভা বরাবর অভিযোগ করলে মিমাংসার জন্য সেখানে সালিশ হয়ে আমাদের কাগজপত্রের সত্যতা প্রমাণিত হয় এবং একটি রায় দেয়া হয় । তারপরও স্থানীয় আমির হোসেনের নেতৃত্বে অন্যায় ভাবে নির্মান কাজ চলতে থাকলে বিষয়টি নিয়ে শ্রীপুর থানায় বসা হলে বিবাদীরা সময় প্রার্থনা করে। কিন্তু অভিযুক্তরা রাতের আঁধারে কৌশলে সে জমিতে বাড়ী নির্মানের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে বলেও জানান দুলাল মোল্লা।

এদিকে, ৩লাখ টাকার বিনিময়ে আমির হোসেন ওই বাড়ী নির্মানে রমজান আলীকে সহায়তা করছে জানিয়ে আরেক বায়নাকারী শামীম সরকার প্রেসক্লাব বরারর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। জমি দখলের কথা অস্বীকার করে অভিযুক্ত রমজান আলী মুঠোফোনে  জানান, আমার কেনা জমিতে আমি বাড়ী নির্মান করছি। এ জমিতে আমার স্ত্রীর কবরও রয়েছে।

এদিকে,আমির হোসেন মুঠোফোনে জানান, আমি করো জমি দখল করতে যায়নি। আমার নামে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। 

শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক (এস আই) আলাউদ্দিন জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর উভয় পক্ষকে নিয়ে বসা হয়েছিল। সকলের কাগজপত্র পর্যালোচনা করে দেখা যায়, আদালতের একটি মামলার রায়ের ভিত্তিতে ওয়ারিশ সুত্রে সুফিয়া ওই জমির মালিকানা  অর্জন করে দুলাল গংদের কাছে বায়না করে। বিষয়টি নিয়ে পূনরায় স্থানীয় ভাবে বসার জন্য বলা হলেও বিবাদীগন ডাকে সাড়া দেয়নি বলেও জানান তিনি।

ট্যাগ: bdnewshour24 শ্রীপুর