banglanewspaper

মনির হোসেন জীবন, নিজস্ব প্রতিনিধি: দেশের স্বনামধন্য বিনোদন পার্ক হিসেবে বেশ সুপরিচিত গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বাড়ইপাড়া এলাকায় অবস্থিত 'নন্দন পার্ক'। সবুজের শ্যামলছায়ায় পার্কটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর। ফলে সব বয়সী বিনোদনপ্রেমীদের পছন্দের শীর্ষে থাকে 'নন্দন পার্ক' এর নাম।

তবে দীর্ঘদিনের সুনাম ও খ্যাতিতে ভাঁটা পরে বেশ কিছু কর্মকান্ডের জন্য। অভিযোগ উঠেছে পার্কের বর্তমান চীফ এক্সিকিউটিভ অফিসার (সিইও) হিসেবে অব.প্রাপ্ত লে. কর্নেল তুষার বিন ইউনুস দায়িত্বে আসার পরপরই নন্দন পার্কের সুনাম ক্ষুন্ন হয়েছে।

অব্যবস্থাপনা, স্টাফদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ, পার্কের রিসোর্টে অসামাজিক কার্যকলাপ, পার্কে তাবু তৈরি করে বিভিন্ন পার্টি, পার্কে মাদকদ্রব্যের ব্যবহারসহ নানা অভিযোগ উঠেছে বর্তমান সিইও এর বিরুদ্ধে।

এসব অভিযোগ বেশ কয়েকমাস আগে থেকে উঠলেও এর সত্যতা নিয়ে সৃষ্টি হয় ধূম্রজালের। এ নিয়ে পার্কের স্টাফদের সাথে বর্তমান সিইও এর বিরোধ চলে আসছিল। এর নিমিত্তে অনেককই চাকুরীচ্যুত করার ভয় ও বদলি করার অভিযোগ উঠেছে সিইও এর বিরুদ্ধে।

পরে এসব অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায় চলতি মাসের ১৩ তারিখে গাজীপুর জেলা ডিবি ও কালিয়াকৈর থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে। ওই অভিযানে পার্কের ভিতরে 'নন্দন ভিলেজ' রিসোর্ট থেকে অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িত থাকার দায়ে তিন নারী ও তিন পুরুষকে আটক করা হয়। এছাড়া প্রমাণ পাওয়া যায় বিভিন্ন মাদকদ্রব্যেরও। এ সংক্রান্ত সংবাদ দেশের বেশ কয়েকটি জাতীয় পত্রিকা ও বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।

আর এসব কর্মকাণ্ড নিয়ে পার্কে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারী ও এলাকাবাসীর মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। প্রশ্ন উঠে বর্তমান ব্যবস্থাপনা কমিটি নিয়ে। সিইও ব্যক্তি স্বার্থে নন্দন পার্ক ব্যবহার করছে এমন অভিযোগও রয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে নন্দন পার্কের একাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারীরা জানায়, বর্তমান সিইও নন্দন পার্কে যোগ দেয়ার পর থেকেই পার্কে অব্যবস্থাপনা শুরু হয়। পার্কে অসামাজিক কার্যকলাপের আয়োজনের সকল ব্যবস্থা করে সে। কয়েকজন কর্মকর্তা এ বিষয়ে কথা বললে তাদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করে ও চাকুরীচ্যুত করার ভয় দেখায় সিইও। এছাড়া পার্কে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীদের নানা ভাবে হয়রানী ও বাজে প্রস্তাব দেয়ার ঘটনাও রয়েছে সিইও এর হয়ে কাজ করা তার নিজস্ব লোকজনের বিরুদ্ধে।

তারা আরও জানায়, সিইও পার্কের ভিতরে তাবু তৈরি করে সেখানে একেক সময় একেক রকমের পার্টি করে। সেখানে থাকে মেয়ে ও মাদকদ্রব্য। তবে এসব পার্টি রাতের বেলাতে হয় বলে জানান তারা।

নন্দন পার্কে এসব কার্যকলাপ নিয়ে স্থানীয় এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। এলাকার ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে এমন দাবী করে স্থানীয়রা গতকাল (২৬ সেপ্টেম্বর) নন্দন পার্কের মালিকপক্ষের সাথে বৈঠক করেছে। বৈঠকে নন্দন পার্কের সমসাময়িক বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠকে নন্দন পার্কের সিইও এর বিষয়টি উত্থাপন করা হয়। মালিকপক্ষ সকল বিষয়ে দুইদিনের সময় চেয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নেতৃবৃন্দ।

বৈঠকে এসময় উপস্থিত ছিলেন, বাড়ইপাড়া এলাকার সমাজসেবক আলী হোসেন সিকদার, গাজীপুর জেলা পরিষদের সদস্য ফালাক উদ্দিন মৃধা, আটাবহ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান এমএ আলীম, বর্তমান চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) গণি, সাভার আওয়ামী লীগ নেতা সজিব সিকদার, নন্দন পার্কের ডাইরেক্টর এনামুল হক চৌধুরীসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও নন্দন পার্কের উর্ধ্বতন কর্মকতাসহ আরও অনেকে।

নন্দন পার্ক আগের স্বরুপে ফিরে আসুক। সঠিক ব্যবস্থাপনায় দর্শনার্থীদের বিনোদন চাহিদা পূরণ হবে এমন টাই প্রত্যাশা সকলের।

ট্যাগ: bdnewshour24 নন্দন পার্কে