banglanewspaper

মাগুরা প্রতিনিধি ॥ ছেলে পক্ষ না আসায় বিয়ে পন্ড হওয়ার ঘটনায় অপমানিত হয়ে মাগুরার মহম্মদপুরের বাশো গ্রামে শাহিদুল ইসলাম (৩২) নামে এক ব্যক্তি গতকাল শুক্রবার আত্মহত্যা করেছে। সে পেশায় একজন ঘটক। নিহত শাহিদুল ইসলাম ওই গ্রামের ছুরমান শেখের ছেলে।

স্থানীয় বাবুখালী ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য নাঈম হাসান বাবলু জানান, মাগুরার মহম্মদপুরের বাশো গ্রামের হাবি মোল্যার মেয়ে রুমির সাথে ফরিদপুর জেলার কোমরপুর গ্রামের দলিল উদ্দিন মোল্যার ছেলে সাবু মোল্যার বিয়ে ঠিক হয়। যার মধ্যস্থতাকারি ঘটক ছিলেন শাহিদুল ইসলাম। রুমি ও সাবুর মধ্যে আগে থেকে সম্পর্ক আছে। পাশাপাশি তারা নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে বিয়ে করেছে এমন কাগজপত্র দেখিয়ে মেয়ে পক্ষকে বিয়েতে রাজি করান শহিদুল। এমনকি বিয়ের জন্য মেয়ে পক্ষ ঘটকের কথা মত ছেলেকে কিছু টাকা অগ্রিম পর্যন্ত দেয়। কিন্তু শুক্রবার বিয়ের নির্ধারিত দিনে ছেলের পরিবারের লোকজন বিয়েতে রাজি নয় মর্মে জানিয়ে দেয়। এটি জেনে মেয়ে পক্ষ ঘটককে নানাভাবে কটুক্তি করে।

এছাড়া বিষয়টি নিয়ে ঘটকের নিজের বাড়ির লোকজন গালমন্দ করে ঘটক শহিদুলকে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে শুক্রবার সকালে নিজ বাড়ির পাশে একটি আম গাছে গলায় গামছা পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে শহিদুল।

মহম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তারক বিশ্বাস জানান, পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। আত্মহত্যার কারণ জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। শহিদুলকে এলাকায় ঘটক হিসাবে জানে সবাই।

ট্যাগ: bdnewshour24 মাগুরা আত্মহত্যা