banglanewspaper

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে স্ত্রীকে তালাক না দেওয়ায় মিল্টন হোসেন নামের এক যুবককে শিকলে বেঁধে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটে গত বৃহস্পতিবার রাতে তাড়াশ পৌর এলাকার রঘুনিলী গ্রামে। মিল্টন হোসেন ওই গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে।

বগুড়ার গাবতলী উপজেলার ধুলিরচর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে রাবেয়া খাতুনের অভিযোগ পেয়ে গতকাল শুক্রবার সেখানে গিয়ে দেখা যায়, বাড়ির বারান্দায় লোহার শিকলে মিল্টনকে বেঁধে রাখা হয়েছে। মিল্টনের দুই হাত, দুই পা ও কোমরে শিকল দিয়ে বাঁধা। পৃথক তিনটি শিকলে ঝুলছে বড় বড় তিনটি তালা।

শিকলবন্দি মিল্টন বলেন, ‘বৃহস্পতিবার রাতে মা-বাবা ও বোন মিলে আমাকে নির্যাতনের পর বেঁধে রেখেছেন। স্ত্রীকে তালাক দিতে মা-বাবা প্রায়ই চাপ দিচ্ছিলেন। কিন্তু তাতে রাজি না হওয়ায় সবাই মিলে আমাকে এভাবে নির্যাতন চালায়।’

তবে মিল্টনের বাবা ইসমাইল হোসেন বলেন, ‘আমার ছেলে মাদকাসক্ত। তাই তার নির্যাতন ঠেকাতে বেঁধে রাখা হয়েছে। আর স্ত্রীকে একবার তালাক দিয়ে আবারও বিয়ে করায় তাদের মধ্যে বনিবনা নেই।’

ট্যাগ: bdnewshour24 স্ত্রীকে তালাক স্বামী শিকলবন্দি