banglanewspaper

বিরাট কোহলির নেতৃত্বে ভারত ভালো করছে। কোহলির একটি বিষয় বেশ প্রশংসা পাচ্ছে, সাহসী সিদ্ধান্ত নিতে তিনি কখনও পিছপা হন না। তবে সাহসী সিদ্ধান্ত নিতে গিয়ে অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়কেও বাইরে ছুড়ে ফেলতে হয়।

তবে ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির মতে, এখন ভারতীয় দলের বাইরে থাকা কুলদ্বীপ যাদব আর ইয়ুজবেন্দ্র চাহালের বেলায় ওতটা কঠোর হওয়া উচিত হবে না কোহলির।

এই দুই স্পিনারকে আবারও দলে ফেরানোর দাবি তুলেছেন সৌরভ। বিশেষ করে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চিন্তা মাথায় রেখে তাদের একাদশে সুযোগ দেয়া উচিত বলেই মত ভারতের সাবেক এই অধিনায়কের।

ব্যাটিংয়ের শক্তি বাড়াতে গিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সর্বশেষ দুই টি-টোয়েন্টি সিরিজে দলে নেয়া হয়নি কুলদ্বীপ আর চাহালকে। সৌরভ আশা করছেন, তাদের এই বাদ পড়াটা যেন সাময়িক হয়। ২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে এমন দুজন খেলোয়াড়কে দল থেকে ছিটকে ফেলার সিদ্ধান্ত ভুল হবে বলেই মত তার।

সৌরভ বলেন, ‘এই দলটা খুব ভালো। তবে বিরাটের (কোহলি) উচিত এই ফরমেটে রিস্ট স্পিনারদের ফিরিয়ে আনা। আশা করছি অন্যদের সুযোগ দিতে ইয়ুজবেন্দ্র চাহালকে শুধু বিশ্রামই দেয়া হয়েছে। না হলে টি-টোয়েন্টি ফরমেটে তাকে অবশ্যই রাখা উচিত।’

দলে দুজন বাঁহাতি স্পিনার রাখার কোনো প্রয়োজনীয়তাই দেখছেন না সৌরভ। তার ভাষায়, ‘ভারতীয় দলে দুজন বাঁহাতি স্পিনার (রবীন্দ্র জাদেজা আর ক্রুনাল পান্ডিয়া) দরকার নেই। শিগগিরই টেস্ট সিরিজ শুরু হচ্ছে, ভারত খুব ভালো পিচে খেলবে, নিশ্চয়ই র্যাংক টার্নার হবে না। এটা শেষ সিরিজ (বিশ্বকাপের আগে নিজেদের পরখ করার)। আর ভারত যে কোনো মাঠেই ভালো খেলার মতো দল।’

প্রসঙ্গত, ২ অক্টোবর থেকে বিশাখাপত্তমে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্ট শুরু হবে ভারতের। সিরিজে ৩টি টেস্টের পর সমান ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজও রয়েছে দুই দলের।

ট্যাগ: bdnewshour24 কোহলি সৌরভ