banglanewspaper

মাগুরা প্রতিনিধি: মাগুরা সদর উপজেলার দোড়ামতনা গ্রামে গতকাল রবিবার বিকেলে আপন দুই ভাইয়ের মধ্যে পাওনা টাকা চাওয়া নিয়ে দুই ভাইয়ের সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ২০জন আহত হয়েছে।

এ সময় একটি দোকানসহ ১০বাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। আহতদের মধ্যে ১০ জনকে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, রাঘোবদাইড় ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড দুই মেম্বর প্রার্থী রামজান ও আহম্মদ আলীর নেতৃত্বে স্থানীয় গ্রামবাসীদের মধ্যে দু ভাগে বিভক্ত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে।

এ বিরোধের জের ধরে রবিবার বিকেলে আহম্মদ সমর্থক খয়বর মোল্যার সাথে পাওনা টাকা চাওয়া নিয়ে তার আপন ছোট ভাই রমাজান সমর্থক জহুর মোল্যার সাথে কথাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। যা নিয়ে উত্তেজনার এক পর্যায়ে দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়।

এ সময় প্রতিপক্ষের হামলা-পাল্টা হালায় উভয় পক্ষের ২০জন আহত ও একটি দোকানঘরসহ ১০টি বাড়ি ঘর ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।

আহতদের মধ্যে শাহীনুর (৩০), গোলাম সরোয়ার (৬০), সাজু বিবি (৬০), ইসলাম (৩৫), আসাদ (৪০), সালাম (৫০), রাশেদ (২৫), মানিক (৩৫), লুৎফর (৫০), সব্দুল (৩৫)কে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

এক পক্ষের প্রধান শেখ সামছুদ্দিন আহম্মদ ১নং ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগের সভাপতি অন্যদিকে রমজান একই ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক। তারা দুইজনই আগামী নির্বাচনে রাঘবদাইড় ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের মেম্বর প্রার্থী।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম জানান, সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনে। পুনরায় সংঘর্ষ এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সংঘর্ষের সাথে জড়িত তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 মাগুরা