banglanewspaper

রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর রাণীনগরে বিয়ের প্রলোভনে ২০ বছর বয়সি এক যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় রাণীনগর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে মঙ্গলবার রাতে অভিযুক্ত ধর্ষক হাফিজুর রহমান (২৭) কে গ্রেফতার করেছে।

বুধবার সকালে গ্রেফতার হাফিজুরকে আদালতে এবং যুবতিকে মেডিক্যাল চেকআপের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ওই যুবতি রাণীনগর উপজেলার প্রত্যন্ত অ লের বাসিন্দা এবং গ্রেফতার হাফিজুর রহমান একই উপজেলার কাশিমপুর ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের সহিম উদ্দীন মন্ডল ওরফে বটুর ছেলে।

যুবতির বাবা (৫৫) জানান, গত প্রায় চার বছর আগে দারিদ্রতার কারনে স-পরিবারে ঢাকায় যান। সেখানে যুবতি মেয়ে একটি গার্মেন্টসে এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা বিভিন্ন কাজে নিয়োজিত হয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলেন। এরই মধ্যে তার ভাগ্নে হাফিজুর রহমান ঢাকায় গিয়ে তাদের ভারা বাসায় ওঠে। ওই বাসায় প্রায় আড়াই বছর এক সঙ্গে ছিলেন তারা। এরই মধ্যে যুবতি মেয়েকে বিয়ের প্রস্তাব দেয় সে। শেষ পর্যন্ত গত ৯ জুন রাতে যুবতি স্ব-পরিবারে নিজ বাড়িতে ফিরে আসে।

এ সময় হাফিজার রহমান যুবতির বাড়ীতে গিয়ে জানায়, আনুষ্ঠানিক ভাবে কালই তাকে বিয়ে করবে। বিয়ের এমন প্রলোভন দিয়ে ওই রাতেই যুবতিকে ধর্ষন করে ভোর রাতে পালিয়ে যায় সে। এর পর থেকে তার সাথে যুবতির পরিবারের লোকজন যোগাযোগ করলেও বিয়ে করতে অস্বিকার করে। এক পর্যায়ে সুষ্ঠু বিচারের আশায় আদালতে অভিযোগ দায়ের করলে আদালত অভিযোগটি আমলে নিয়ে রাণীনগর থানা পুলিশকে অভিযোগটি মামলা আকারে রেকর্ডভুক্ত করতে নির্দেশ দেয়। এরপর রাণীনগর থানা পুলিশ মঙ্গলবার রাতে মামলা ভুক্ত করে ওই রাতেই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ধর্ষক হাফিজুর রহমানকে গ্রেফতার করে।

এ ব্যাপারে রাণীনগর থানার ওসি মো: জহুরুল হক বলেন, গ্রেফতারকৃত হাফিজার রহমানকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং ধর্ষিতা যুবতিকে মেডিক্যাল চেকআপের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 রাণীনগর