banglanewspaper

দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে এবার শরৎকালেও সারাদেশে ভারি বৃষ্টি হচ্ছে। গত সোমবার থেকে বুধবার পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন জায়গায় বজ্র ও বৃষ্টিপাতের খবর শোনা যাচ্ছে। আবহাওয়া অফিস বলছে, আজকেও দেশের কোথাও কোথাও বৃষ্টি ভারি বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে।

গত মঙ্গলবার সিলেটে সর্বোচ্চ বৃষ্টি হয়েছে ১২০ মিলিমিটার। এদিন ঢাকায় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিলো ৪৫.৩ মিলি মিটার। তবে বুধবার রোদ ঝলমলে ছিল ঢাকার আকাশ। সর্বোচ্চ ৮৫ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে বরিশালের খেপুপাড়ায়। আবহাওয়ার পূর্ভাবাস বলছে, বৃহস্পতিবারও ঢাকায় বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা কম। তবে ঢাকার আশেপাশের এলাকাগুলোতে বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে আবহাওয়া অধিদপ্তরের দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অক্টোবর মাসের তৃতীয় সপ্তাহের মধ্যে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ুপ্রবাহ বাংলাদেশ থেকে বিদায় নেবে। অর্থাৎ এর মধ্য দিয়েই বিদায় নেবে বর্ষাও। ফলে বৃষ্টিপাতের পরিমাণও কমবে।

অক্টোবরে বর্ষা বিদায় নিলেও এ মাসের পূর্বাভাসে আরো বলা হয়েছে, মাসজুড়ে দেশে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হতে পারে। অক্টোবরে বঙ্গোপসাগরে ১ থেকে ২টি নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে। যার মধ্যে একটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। আর দেশের প্রধান নদ-নদীতে স্বাভাবিক প্রবাহ বিরাজ করতে পারে।

আবহাওয়ার উপাত্ত, ঊর্ধ্বাকাশ আবহাওয়া বিন্যাস, বায়ুমণ্ডলের বিভিন্ন স্তরের বিশ্লেষিত আবহাওয়া মানচিত্র, জলবায়ু মডেল, ক্লাইমেট প্রিডিক্টিবিলিটি টুল, ইসিএমডব্লিউএফ, জেএমএ, এনওএএ, অপেক ক্লাইমেট সেন্টার, আইআরআই, সি৩এস এবং বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা অনুমোদিত গ্লোবাল প্রডিউসিং সেন্টার থেকে প্রাপ্ত তথ্য বিশ্লেষণ করে বর্ষার বিদায়, ঘূর্ণিঝড় আসাসহ উল্লিখিত সিদ্ধান্তগুলো জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

এদিকে মৌসুমী বায়ুর অক্ষের বর্ধিতাংশ উত্তর প্রদেশ, মধ্য প্রদেশ, বিহার ও পশ্চিমবঙ্গ অতিক্রম করে বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারী অবস্থায় বিরাজ করছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 চলতি মাস বিদায় বর্ষা বৃষ্টিপাত