banglanewspaper

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়েছে। শিক্ষার্থীরা আন্দোলন শিথিলের ঘোষণা দেওয়ায় সোমবার (১৪ অক্টোবর) পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়। ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ক্যাম্পাসে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

বুয়েটের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের সকল অনুষদের সকল বিভাগের স্নাতক শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষা সকাল ৯টা থেকে শুরু হয়। ক্যাম্পাসে দুই শিফটে ১০ কেন্দ্রে ভর্তি পরীক্ষা হচ্ছে।

ভর্তি কমিটি সূত্র জানিয়েছে, এ বছর ভর্তির জন্য ১৬ হাজার ২৮৮টি আবেদন পড়েছিল। তার মধ্যে থেকে ১২ হাজার ১৬১ শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবেন। আট হাজার ৮৯৬ জন ছাত্র ও তিন হাজার ২৬৫ জন ছাত্রী। ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণের মাধ্যমে মেধা অনুযায়ী ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবেন এক হাজার ৬০ জন। এরমধ্যে এক হাজার পাঁচ জন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ও ৫৫ জন আর্কিটেকচার বিভাগে ভর্তি হতে পারবেন।

আর্কিটেকচার বিভাগে ভর্তির জন্য দুপুর ২টা থেকে ৪টা পর্যন্ত অতিরিক্ত সময় ড্রয়িং পরীক্ষা দিতে হবে। আগামী ৫ নভেম্বরের মধ্যে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হবে।

এদিকে সকাল থেকেই ভর্তিচ্ছুদের সহযোগিতার জন্য ক্যাম্পাসে অবস্থান নিয়েছেন বুয়েটের শিক্ষার্থীরা। এ সময় ভর্তিচ্ছুদের মাঝে খাবার পানি ও স্ন্যাকস বিতরণ করেন তারা। এছাড়াও ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে সহযোগিতার জন্য রোভার স্কাউটের দল রয়েছে।

ক্যাম্পাসে একাধিক আঞ্চলিক সংগঠন রয়েছে। অঞ্চল ভিত্তিতে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের জন্য হেল্প ডেস্ক বসানো হয়েছে।

এর আগে শনিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন পাঁচ দফা দাবি মেনে নেওয়ায় বুয়েট ক্যাম্পাস ক্যাফেটেরিয়ার সামনে আলোচনা করে ১৩ ও ১৪ অক্টোবর আন্দোলন শিথিলের সিদ্ধান্ত নেয় আন্দোলনকারীরা। পরে একাডেমিক কাউন্সিলের বৈঠকে নির্ধারিত সময়েই বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ। রাতেই আসন বিন্যাসসহ দাফতরিক নানা কাজ সম্পন্ন করেন ভর্তি পরীক্ষা কমিটি। সর্বশেষ দুপুরে ভর্তি পরীক্ষায় নিরাপত্তার বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে বৈঠক করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

ট্যাগ: bdnewshour24 বুয়েট