banglanewspaper

কুষ্টিয়ার কুমারখালীর ছেঁউড়িয়ায় বুধবার (১৬ অক্টোবর) থেকে শুরু হচ্ছে মরমী সাধক বাউল সম্রাট ফকির লালন শাহের ১২৯তম তিরোধান দিবস উদযাপন। শুক্রবার রাতে সমাপনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হবে তিন দিনব্যাপী এ তিরোধান দিবসের অনুষ্ঠান।

দিবসটি উপলক্ষে লালন মাজারকে সাজানো হয়েছে নতুন সাজে। মাজারের ভেতরে লালন একাডেমির আশপাশ এলাকায় বসবে খণ্ডখণ্ড করে বাউল ফকিরদের আসর। বাইরে উন্মুক্ত লালন মঞ্চে চলবে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। উৎসবকে ঘিরে কুষ্টিয়ার ছেঁউড়িয়ায় কালি নদীর পাড়ে বসছে তিন দিনের লালন মেলা।

বাউল দর্শনের ভাবাবেগ আর উৎসুক দর্শকদের ভিড় সামাল দিতে নেয়া হচ্ছে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা। চলছে আলোক সজ্জা, পরিচ্ছন্নতা, মঞ্চ তৈরিসহ আরো নানা আয়োজন। দেশি বিদেশি দর্শনার্থী, সাধক ও আয়োজকদের নিরাপত্তায় নেয়া হয়েছে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা।

সাংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় ও লালন একাডেমির আয়োজনে বুধবার সন্ধ্যায় তিন দিনব্যাপী বাউল সম্রাট লালন শাহ’র তিরোধান দিবসের উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ এমপি।

প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭টা থেকে তিন দিনব্যাপী চলবে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে আগত দোকানিরা পসরা সাজিয়ে বসছেন এই গ্রামীণ মেলায়। দূর দূরান্ত থেকে ফকির সাধকদের আগমন বার্তা শোনা যাচ্ছে আখড়াবাড়ির আঙিনায়।

কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত বলেন, 'প্রতিবছরই সাঁইজির তিরোধান দিবস উপলক্ষে আয়োজিত লালন মেলা অংশ নেয় দেশ-বিদেশ থেকে আসা লাখো মানুষ। তাদের নিরাপত্তা দিতে প্রতিবারের মত এবারও তিন স্তরের নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। অনুষ্ঠান স্থলে কেউ যাতে নাশকতা করতে না পারে সে জন্য অনুষ্ঠান স্থলে প্রবেশ পথে ম্যান টু ম্যান চেকিং করা হচ্ছে।'

কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক ও লালন একাডেমীর সভাপতি মো. আসলাম হোসেন বলেন, 'ফকির লালন সাইজীর তিরোধান দিবস উপলক্ষে ইতিমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। বিগত দিনে আমরা যেভাবে এই মরমী সাধককে স্মরণ করে থাকি এবারেও সে ভাবেই স্মরণ করব। ইতোমধ্যে আখড়াবাড়িতে লালন ভক্তরা আসতে শুরু করেছে।'

আয়োজকরা আশা করছে এবার লাখো ভক্তের সমাবেশ ঘটবে আখড়াবাড়িতে।

ট্যাগ: bdnewshour24 লালন