banglanewspaper

সরাইল বিশ্বরোড মোড় খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানা–পুলিশ গতকাল সোমবার বেলা দেড়টার দিকে দুই যুবককে আটক করে। পুলিশের ভাষ্যমতে, তাঁদের কাছ থেকে শিয়ালের ২৭ কেজি মাংস জব্দ করা হয়। পরে তাঁদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করা হয়। আদালত তাদের বিরুদ্ধে জেল–জরিমানার আদেশ দেন।

ওই দুই যুবক হলেন হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলার মুড়াকুড়ি গ্রামের সাদ্দাম হোসেন ও আরজত আলী। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই দুই যুবক কয়েক দিন ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদরসহ বিভিন্ন হাটবাজারে রেস্তোরাঁয় ২২০ টাকা কেজি দরে খাসির মাংস বলে শিয়ালের মাংস বিক্রি করে আসছিলেন। গতকাল দুপুরে সরাইল বিশ্বরোড মোড়ের একটি রেস্তোরাঁয় ওই মাংস বিক্রি করতে গেলে মাংসের মূল্য ও রং দেখে ক্রেতার সন্দেহ হয়। পরে হোটেল কর্তৃপক্ষ পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ তাদের আটক করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা শিয়ালের মাংস বিক্রির কথা স্বীকার করেন। তারা এই মাংস ঢাকার পূর্ব রামপুরা এলাকা থেকে সংগ্রহ করে থাকেন বলে পুলিশকে জানান। 

বেলা দুইটার দিকে সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী হাকিম ফারজানা প্রিয়াংকা ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে শিয়ালের মাংস বিক্রির দায়ে সাদ্দাম হোসেনকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং আরজত আলীর বিরুদ্ধে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন। 

সরাইল বিশ্বরোড মোড় খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাইনুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, জব্দ করা মাংস অস্ট্রেলিয়ান মাগুর মাছের খামারে ফেলা হয়েছে। আরজত আলীকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। 

ট্যাগ: bdnewshour24 খাসির মাংস