banglanewspaper

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে মদ না খেয়েই মাতাল হয়ে পড়ার কারণে ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হয় বছর ৪৬-এর ব্যক্তিকে। আর তখনই ধরা পড়ে চমকে যাওয়ার মতো একটি বিষয়।

জানা যায়, এই ভদ্রলোকের পাকস্থলীতে বাসা বাঁধা ছত্রাকের কারণে তার পেটের ভিতরকার শর্করা পরিণত হচ্ছে বিয়ারে।

যুক্তরাষ্ট্রের একটি মেডিকেল জার্নাল সূত্রে জানা গেছে, ঘটনাটির সূত্রপাত হয় ২০১৪ সালে। ৪৬ বছরের এক ব্যক্তিকে অতিরিক্ত অ্যালকোহল খেয়ে গাড়ি চালানোর অভিযোগে আটক করে নিউইয়র্ক পুলিশ। ব্রেথলাইজার টেস্টে ধরা পড়ে, গাড়ি চালানোর সময় শরীরে যতটা অ্যালকোহল থাকার কথা তার থেকে পাঁচগুণ বেশি তার শরীরে রয়েছে। ওই ব্যক্তির দাবি, তিনি মদ্যপান করেননি।

এরপর থেকে প্রায় প্রতিদিনই তার সঙ্গে এ ধরনের বিপত্তি ঘটতে থাকে। তিনি অবাক হয়ে লক্ষ্য করেন, মদ না খেলেও তার শরীরে অ্যালকোহলের মাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর অযথা পুলিশ ও পরিবারের লোকেরা তাকে মাতাল ভাবছে।

তিন বছর ধরে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি দেখে নিউইয়র্কের রিচমন্ড বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারের এক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের শরণাপন্ন তিনি। আর তখনই জানা যায়, তার শরীরে থাকা অটো-ব্রেউয়ারি সিন্ড্রোম নামে বিরল রোগের কারণে এই অভিনব ঘটনা ঘটছে।

তার পায়খানা পরীক্ষা করে স্যাকারোমাইসিস সেরাভিসি নামে বিশেষ প্রজাতির ছত্রাক পাওয়া যায়। যে ছত্রাকটি ব্যবহার করে শর্করাকে অ্যালকোহলে পরিণত করেন বিয়ার নির্মাতাকারীরা।

আরো জানা যায়, তার পাকস্থলীতে বিশেষ ধরনের ছত্রাকটি রয়েছে। যার ফলে তিনি যখনই শর্করা জাতীয় খাবার খান, তখনই তা অ্যালকোহলে পরিণত হয়।

জানা যায়, ২০১১ সালে তার আঙুলে একটি চোট লেগেছিল। তারপর এক চিকিৎসকের পরামর্শে কয়েকটি অ্যান্টিবায়োটিক খেয়েছিলেন তিনি। তারপর থেকেই তার স্মৃতিবিভ্রাট হতে থাকে। কিছুটা মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ার পাশাপাশি মাথাঘোরার রোগও বাসা বাঁধে শরীরে।

সব কথা শুনে অন্যএক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক তাকে কিছু ওষুধ খেতে দেন। যারপর থেকে ভালই আছেন তিনি। আর কোনওদিন এই ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়নি তাকে।

ট্যাগ: bdnewshour24 পাকস্থলী বিয়ার