banglanewspaper

ফরহাদ খান, নড়াইল: দীর্ঘ ১৫ বছর পর নড়াইলের নড়াগাতি থানা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন আজ (২৬ অক্টোবর) অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। নড়াগাতি বাজারের পাশে কাচারিবাড়ি মাঠ চত্বরে আজ (শনিবার) সকাল ১০টায় এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

কাউন্সিলররা উৎসব মুখর পরিবেশে ভোটের মাধ্যমে নেতা নির্বাচনের অপেক্ষায় আছেন। তবে নড়াগাতি থানা এবং থানার অধীন ছয়টি ইউনিয়ন থেকে দু’টি করে কাউন্সিলরের নামের তালিকা জেলা আ’লীগের নেতাদের কাছে জমা পড়ায় সম্মেলন সুষ্ঠু হবে কিনা, তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন অনেক কাউন্সিলর। এদিকে, মনোনয়নের মাধ্যমেও নেতা নির্বাচনের তৎপরতা চলছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০০৩ সালে সর্বশেষ নড়াগাতি থানা আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে মফিজুল হককে সভাপতি এবং খান শামীম রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠিত হয়। তবে সাধারণ সম্পাদক খান শামীম রহমান ২০০৮ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে কাজ করায় কেন্দ্র থেকে তাকে (শামীম) বহিষ্কার করা হয়। তখন দলের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক খাজা নাজিম উদ্দীন ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পান।

২০১৩ সালের মার্চে নড়াগাতি থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মফিজুল হকের সভাপতিত্বে বর্ধিত সভায় নড়াইল-১ আসনের সংসদ সদস্য কবিরুল হক মুক্তির উপস্থিতিতে থানার অধীন ছয়টি ইউনিয়ন কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়। এরপর ওই বছরের (২০১৩) মে মাসে ছয়টি ইউনিয়নে আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। পরবর্তীতে ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে ছয়টি ইউনিয়নে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়।

তখন থেকেই নড়াগাতিতে আ’লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। এক অংশের নেতৃত্বে আছেন-নড়াগাতি থানা আ’লীগের বর্তমান সভাপতি মফিজুল হক ও সাধারণ সম্পাদক খাজা নাজিম উদ্দীন। অন্য অংশের নেতৃত্বে আছেন নড়াইল-১ আসনের সংসদ সদস্য কবিরুল হক মুক্তির সমর্থকেরা।

নড়াগাতি থানা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম খাজা নাজিম উদ্দিন বলেন, শুনেছি ছয়টি ইউনিয়ন থেকে দু’টি পক্ষের কাউন্সিলরদের নামের তালিকা জেলা আ’লীগ অফিসে জমা দেয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে নড়াগাতি থানা আ’লীগের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত কাউন্সিলদের নামের তালিকা সঠিক হবে। অন্য কোন তালিকা গ্রহণযোগ্য নয়।

এক প্রশ্নের উত্তরে খাজা নাজিম উদ্দীন আরো বলেন, জাতীয় ও স্থানীয় নির্বাচনে যারা শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে দলীয় প্রতীকের বিরোধিতা করেছেন; তাদের বাদ দিয়ে নতুন কমিটি গঠন করা প্রয়োজন।

নড়াগাতি থানা আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী বশিরুল ইসলাম ও হাসনাত চৌধুরী বলেন, আমরা হানাহানি, দ্বন্দ্ব-সংঘাত চাই না। প্রকৃতপক্ষে যারা দল করেন, তাদের কাউন্সিলর করে ভোটের মাধ্যমে নেতা নির্বাচন করতে হবে। আশা করি জেলা আ’লীগের নেতারা সেটাই করবেন। 

জেলা আ’লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক দেবাশিস কুন্ডু মিটুল বলেন, নড়াগাতির ছয়টি ইউনিয়ন থেকে দু’টি করে কাউন্সিলরের নামের তালিকা পাওয়া গেছে। সম্মেলন সুষ্ঠু-সুন্দর ভাবে সম্পন্ন করতে সব প্রস্তুতি শেষ হয়েছে।

গত ১০ অক্টোবর বর্ধিত সভাও অনুষ্ঠিত হয়েছে। সম্মেলনস্থল নড়াগাতির কাচারিবাড়ি মাঠ চত্বরসহ বিভিন্ন এলাকায় পোস্টার, ব্যানার ও তোরণে পদপ্রত্যাশীদের ছবিসহ নানা কথাবার্তা শোভা পাচ্ছে। দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মাঝে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, সম্মেলনে প্রধান অতিথি থাকবেন আ’লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান এবং প্রধান বক্তা জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজামউদ্দিন খান নিলুসহ নেতৃবৃন্দ।

সম্মেলন উদ্বোধন করবেন জেলা আ’লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস। বিশেষ অতিথি থাকবেন নড়াইল-১ আসনের সংসদ সদস্য কবিরুল হক মুক্তি ও নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজাসহ অন্যান্য অতিথিরা।

ট্যাগ: bdnewshour24 নড়াইল