banglanewspaper

বাদশাহী ভাব নিয়ে চলা পুলিশ সদস্যদের ডিএমপিতে থাকার দরকার নেই বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার শফিকুল ইসলাম।

তিনি বলেছেন, পুলিশের পোশাক-পরিচ্ছেদ থেকে শুরু সবকিছু জনগণের ট্যাক্সের টাকায়। তাই যেসব পুলিশ নিজেদের বাদশা আর জনগণকে প্রজা ভাবেন তাদের ডিএমপিতে চাকরি করার দরকার নেই।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ অডিটোরিয়ামে ‘কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০১৯’ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশ্যে ডিএমপি কমিশনার বলেন, কোনো পুলিশ অফিসার কিংবা সদস্য যদি নিজেদের বাদশা ভাবেন, আর জনগণকে প্রজা ভাবেন তাহলে ডিএমপিতে চাকরি করার দরকার নেই।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘এই শহরে যারা ভালো মানুষ আছেন, যারা দেশের মঙ্গল চান তারা যদি দেশের ভালোর জন্য এককদম এগিয়ে আসেন, কথা দিচ্ছি তাদের কাছে আমরা দশ কদম এগিয়ে যাব।’

পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশ্যে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘নাগরিকদের ট্যাক্সের টাকায় আমাদের মাথার টুপি থেকে পায়ের জুতা পর্যন্ত, এমনকি আমার সন্তানের লেখাপড়া থেকে শুরু করে আমার পেট চলা সবকিছু জনগণের টাকায়। অথচ আমাদের কিছু পুলিশ অফিসারদের ভেতরে ভাব এরকম যে তারা বাদশা, আর জনগণ তাদের প্রজা।’

শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমি পরিষ্কার বলে দিতে চাই এই বোধ নিয়ে ডিএমপিতে কেউ চাকরি করতে পারবে না। এই মহানগরের প্রতিটি মানুষের যে সম্মান-শ্রদ্ধা পাওয়ার কথা, যে সুন্দর আচরণ পাওয়ার কথা। সে আচরণটি যদি কোনো পর্যায় থেকে আপনারা (নাগরিক) না পান আমাদের জানাবেন। আমরা এই সমস্ত দুর্নীতিবাজ লোকজন (অসৎ পুলিশ সদস্য) এরকম একটা সভ্য সমাজে পুলিশের দায়িত্ব দিয়ে রাখব না।’

‘পুলিশের সঙ্গে কাজ করি, মাদক-সন্ত্রাস-জঙ্গিমুক্ত দেশ গড়ি’ স্লোগানে দিবসটি পালন করা হচ্ছে। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, অতিরিক্ত আইজিপি ড. মইনুল হক, কাউন্টার টেরোরিজম এন্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) প্রধান মনিরুল ইসলাম প্রমুখ।

ট্যাগ: bdnewshour24 বাদশাহী ভাব পুলিশ ডিএমপি কমিশনার