banglanewspaper

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলায় পুকুরপাড় থেকে পরিত্যাক্ত অবস্থায় স্বাধীনতা যুদ্ধের ছয়টি স্থলমাইন ও তিনটি গ্রেনেড উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার (২৬ অক্টোবর) রাতে উপজেলার রামপুর গ্রামের একটি পুকুরপাড় থেকে ওই স্থলমাইন ও গ্রেনেড পাওয়া যায়।

স্থানীয়রা জানান, শনিবার বিকেলে কয়েকজন শিশু উপজেলার রামপুরা গ্রামের মাছোর পুকুরপাড়ে খেলছিল। এ সময় তারা মাটি খুঁড়লে ছয়টি স্থলমাইন ও তিনটি গ্রেনেড বের হয়ে আসে। শিশুরা এগুলো নিয়ে খেলছিল। গ্রামের কয়েকজন লোক এটা দেখতে পেয়ে চিনতে পারে। পরে তারা আদমদীঘি থানায় খবর দিলে তারা এসে মাইন ও গ্রেনেডগুলো উদ্ধার করে এবং বোমাগুলো বালতির পানিতে ডুবিয়ে রাখেন।

বোমা উদ্ধারের খবরে উৎসুক জনতা সেখানে ভিড় করেন। রাত সাড়ে ৯টার দিকে পুলিশ বোমাগুলো উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে আদমদীঘি থানার ওসি জালাল উদ্দিন জানান, মাইন ও গ্রেনেডের গায়ে ১৯৯৫ সাল লেখা রয়েছে। 

তিনি বলেন, ধারণা করা হচ্ছে বোমাগুলো স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়কালের। বোমাগুলো পরীক্ষার জন্য বিশেষজ্ঞদের খবর দেয়া হয়েছ।

ট্যাগ: bdnewshour24 বগুড়া