banglanewspaper

ঈশাত জামান মুন্না, লালমমিরহাট প্রতিনিধি: লালমমিরহাট জেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে হলরুমের বাইরে স্লোগান দেয়া নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ১৩ জন আহত হন। শনিবার (২৬ অক্টোবর) দুপুরে জেলা পরিষদ অডিটরিয়াম মাঠে এ সংঘর্ষ বাঁধে।

আহতরা হলেন- জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মোস্তফা স্বপনের ছেলে অনন (২৩), গোকুন্ডা যুবলীগের তারেক(৩০)সহ কমপক্ষে ১৩জন আহত হয়েছেন।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী নেতাকর্মীরা জানান, লালমনিরহাট জেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে বিশেষ বর্ধিত সভার আয়োজন করে জেলা আওয়ামী লীগ। বর্ধিত সভায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক সভা মঞ্চে প্রবেশ করার সময় স্লোগানের মুখোর হয়ে উঠে সভা চত্ত্বর।

কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থতিতে সভা শুরুর মুহুর্তে সভার বাহিরে অডিটরিয়াম মাঠে স্লোগান দেয়া নিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের ন সম্পাদক অ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান ও সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মোস্তফা স্বপনের গ্রুপের মাঝে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১৩ জন আহত হন। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে আহতদের লালমনিরহাট সদর হাসপাতাল ও রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

সভা মঞ্চে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বরা বিষয়টি বুঝতে পেয়ে দুই গ্রুপের দুই নেতা মতিয়ার রহমান ও গোলাম মোস্তফা স্বপনকে হলরুম থেকে বের হয়ে বিবাদমান বিশৃঙ্খলা নিরসন ও মাঠ থেকে সকলকে সরিয়ে  দেয়ার নির্দেশ দেন। এরপর আস্থথে আস্থে শান্ত হয়ে উঠে উত্তাপ্ত পরিস্থিতি।

লালমনিরহাট সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহফুজ আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে আহত ৫ জন ও ১ জনকে আশংকাজনক অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে পরিস্থিতি বর্তমানে পুলিশের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

তবে এ বিষয়ে কেন্দীয় নেতারা মন্তব্য করতে রাজি হননি।

ট্যাগ: bdnewshour24 লালমনিরহাট