banglanewspaper

দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও গঠনতন্ত্র পরিপন্থী কর্মকাণ্ডের অভিযোগে রংপুর মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসিফসহ তিন নেতাকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

রোববার (২৭ অক্টোবর) রাতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

সাময়িক বহিষ্কৃত অন্য দুইজন হলেন- রংপুর মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নয়ন মাহমুদ বিপ্লব ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য জানান, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক গঠনতন্ত্র পরিপন্থী কর্মকাণ্ড ও দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে রংপুর মহানগর ছাত্রলীগ শাখার সাধারণ সম্পাদক শেখ আসিফ, সহ-সভাপতি নয়ন মাহমুদ বিপ্লব ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলামকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

বহিষ্কারের বিষয়ে রংপুর মহানগর ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর হোসেন সুজন বলেন, 'আমরা সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় নেতাদের মাধ্যমে তিনজনের সাময়িক বহিষ্কারের বিষয়টি জানতে পেরেছি। এটি আমাদের দলের সবার জন্য সতর্ক বার্তা।'

এদিকে সাময়িক এই বহিষ্কারের নেপথ্যের কারণ হিসেবে জানা গেছে, শনিবার (২৬ অক্টোবর) রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় হট্টগোল ও বিশৃঙ্খলাসহ হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ সময় সভাস্থলে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক ও সাংগঠনিক সম্পাদক (রংপুর বিভাগীয় দায়িত্ব) বিএম মোজাম্মেল হকসহ জেলা এবং মহানগরের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনে সংঘটিত বিশৃঙ্খলার জন্য মূলত মহানগর ছাত্রলীগকে দায়ী করা হয়েছে।

এ সময় নানক বলেছিলেন, 'আওয়ামী লীগের শত্রু হচ্ছে আওয়ামী লীগ। আমরা ঐক্যবদ্ধ থাকলে বিএনপি-জামায়াত শিবির এক সঙ্গে হয়েও আওয়ামী লীগের কর্মীদের স্পর্শ করতে পারবে না। যারা এ সভায় হট্টগোল গোলমাল করল, তারা আওয়ামী লীগ বা ছাত্রলীগের কেউ হতে পারে না।'

ওই সভায় নানক দলের স্থানীয় নেতা-কর্মীদের অভিযোগের ভিত্তিতে জামায়াত-শিবিরের রাজনীতির সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা থাকার ২৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মন্ডলকে বহিষ্কারের ঘোষণা দিয়ে রংপুরে শুদ্ধি অভিযান শুরুর কথা বলেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 ছাত্রলীগ