banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর)প্রতিনিধিঃ গাজীপুরের শ্রীপুর পৌর এলাকার ভাংনাহাটি গ্রামে নানার বাড়ির বারান্দার ওয়াশরুমের বালতি থেকে ১৮দিন বয়সী শিশু মাহদির লাশ উদ্ধারের ঘটনায় গ্রেপ্তার পিতা ফকির বিজয় হাসানের(২৫)-এর ৭দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ।

২৮ অক্টোবর সোমবার বিকেলে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসে এ কথা জানান গাজীপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার পিপিএম বার। এসময় তার সাথে ছিলেন শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত আলী। 

এর আগে গত রোববার এ ঘটনায় শিশুর মা নুসরাত জাহান মুন্নি বাদি হয়ে শ্রীপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলা হওয়ার পর সোমবার বিকেলে কয়েক ঘন্টা ধরে গাজীপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার ঘটনাস্থলে অবস্থান করে নিহতের পরিবারে বিভিন্ন সদস্যের সাথে একান্তে কথা বলেন।

পরিদর্শন শেষে সন্ধ্যায় পুলিশ সুপার সাংবাদিকদের জানান, ‘এ ঘটনায় তদন্তের প্রয়োজনে অনেককেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সবোর্চ্চ গুরুত্বের সাথে তদন্ত কাজ চলছে। তদন্ত করে অতি দ্রুত সময়ের মধ্যেই প্রকৃত হত্যাকারি সনাক্তের চেষ্টা করছে পুলিশ। ইতোমধ্যে সন্দেহভাজন হিসাবে একজনকে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছে।’

উল্লেখ্য, গত রোববার ভোরে গাজীপুরের শ্রীপুর পৌর এলাকার  ভাংনাহাটি গ্রামে নানা বাড়ির বারান্দার ওয়াশরুমে একটি বালতি থেকে ১৮দিন বয়সী আব্দুল্লাহ আল মাহাদী নামের ছেলে শিশুর মরদেহ উদ্ধার হয়। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে শিশুর বাবা  বিজয় হাসানকে (২৫)কে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

বিজয় একই উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের নগরহাওলা গ্রামের শামসুল হকের ছেলে। ঘটনার দিন শিশুর নানা মোফাজ্জল হোসেন দাবি করেছিলেন, বিজয় হাসানই শিশুটিকে হত্যা করে থাকতে পারে।

তবে গ্রেপ্তারের পর থেকেই পুলিশের কাছে এ হত্যার কথা অস্বীকার করে আসছে শিশুটির বাবা বিজয়। 

ট্যাগ: bdnewshour24 শ্রীপুর