banglanewspaper

চুয়াডাঙ্গায় এক গৃহবধূকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে স্বামীর দুই বন্ধুর বিরুদ্ধে। গত বুধবার সদর উপজেলায় ঘটনাটি ঘটেছে। এ ঘটনায় মামলার পর শুক্রবার রাতে অভিযান চালিয়ে ওয়াশিম নামে এক অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গ্রেপ্তার ওয়াশিমের বাড়ি সদর উপজেলার যদুপুর গ্রামে।

পুলিশ জানায়, গত বুধবার রাতে ওই গৃহবধূর স্বামী ব্যবসায়িক কাজে যশোর যায়। এ সুযোগে স্বামীর দুই বন্ধু মিলন ও ওয়াশিম ওই গৃহবধূকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়। পরে একটি কলাবাগানে দুইজনে তাকে ধর্ষণ করে।

একপর্যায়ে ওই নারী অচেতন হয়ে গেলে ‘ধর্ষকরা’ তাকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরিবারের অন্য সদস্যরা বিষয়টি টের পেয়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করায়।

ধর্ষণের শিকার ওই নারীর স্বামীর অভিযোগ, মিলন ও ওয়াশিমের সঙ্গে তার ভালো সখ্যতা ছিলো। সে সূত্রে অভিযুক্তরা পরিকল্পনা করে তাকে কৃষিপণ্য বিক্রির জন্য যশোরে পাঠায়। রাতে ফিরে আসতে না পারায় সে সুযোগে ধর্ষকরা তার স্ত্রীকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। বাড়ি ফিরে আসার পর স্ত্রীর কাছ থেকে এসব কথা জানতে পারেন তিনি।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) লুৎফুল কবীর জানান, এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর স্বামী বাদী হয়ে দুইজনের নাম উল্লেখ করে শুক্রবার রাতে একটি মামলা করেন। এরপর রাতেই এজাহারনামীয় আসামি ওয়াশিমকে গ্রেপ্তার করা হয়। অন্য আসামিকেও গ্রেপ্তার করতে অভিযান চালানো হচ্ছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 চুয়াডাঙ্গা