banglanewspaper

জাহেলিয়াতের যুগে কন্যা সন্তান হলে তাকে জীবন্ত কবর দেয়ার ভয়াবহ প্রথা চালু ছিল। সেই নৃসংস ঘটনা যেন আবার ফিরে এলো ভারতের তেলেঙ্গানা রাজ্যের রাজধানী হায়দ্রাবাদে। কন্যাসন্তান হওয়ায় একটি শিশুকে জীবন্ত কবর দেয়ার সময় গ্রেপ্তার করা হয়েছে শিশুটির দাদা ও কাকাকে।

পুলিশ জানিয়েছে কন্যাসন্তান হওয়াতেই এমন পদক্ষেপ নিয়েছিল তারা। বৃহস্পতিবার সকালে  হায়দ্রাবাদের জুবিলি বাসস্ট্যান্ডের কাছে এই ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ জানিয়েছে, ওইদিন সকালে দুই ব্যক্তিকে দেখে সন্দেহ হয় এক অটোচালকের। দুই ব্যক্তি ব্যাগ হাতে নিয়ে মাঠের মাটি খুঁড়ছিল। তাদের গতিবিধি সন্দেহজনক হওয়ায় শীঘ্রই পুলিশে খবর দেন ওই অটোচালক।

কিছুক্ষণের মধ্যেই সেখানে পৌঁছে যায় পুলিশ। ব্যাগে কি আছে তা পুলিশ জানতে চাওয়ায় ওই এক ব্যক্তি বলেন ‘জটিল অস্ত্রোপচারে তাদের নাতনির মৃত্যু হয়েছে। এত দূরে বাসে-ট্রেনে মৃতদেহ আনা সম্ভব হয়নি। তাই মৃতদেহ ব্যাগে করে কম্বলে মুড়ে আনা হয়েছে।’

সন্তোষজনক জবাব না পেয়ে ব্যাগ খুলতেই হতবাক হয়ে যান পুলিশ কর্মকর্তারা। ফুটফুটে শিশু কন্যা রয়েছে জীবিত অবস্থাতেই। এরপরই তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। জেরায় তারা জানিয়েছে কন্যা সন্তান হওয়াতেই জীবন্ত কবর দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল তারা। সম্পর্কে তারা শিশুটির দাদা ও কাকা হন।

ট্যাগ: bdnewshour24 কন্যাসন্তান