banglanewspaper

নাটোরের সিংড়ার ভ্যানচালক আনিসুর রহমানের বিদ্যুৎ বিল এসেছে ২ লাখ ৩১ হাজার ৭৫৯ টাকা। বিলের কাগজ হাতে পেয়ে কি করবেন বুঝে উঠতে পারছেন না তিনি। পরে বিষয়টি পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে জানানোর পর ৭২১ টাকার সংশোধিত বিল দেওয়া হয়। প্রিন্টের ভুলে এমন বিল করা হয়েছে বলে দাবি পল্লী বিদ্যুতের। নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ সিংড়া জোনাল অফিসের উপ-মহাব্যবস্থাপক রেজাউল করিম এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

আনিসুর জানান, তার বাড়িতে একটা অটোভ্যান চার্জ দেওয়া হয়। এছাড়া  দুটি ফ্যান, দুটি বাল্ব, একটি ফ্রিজ ও টিভি চলে। সাধারণত প্রতিমাসে বিল আসে ৩০০-৫০০ টাকা। বুধবার (৩০ অক্টোবর) বিকালে মিটার রিডার তার বাড়ির আক্টোবরের বিলের কপি দিতে আসেন। বিল ২০ হাজার ৮৫০ ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহার দেখানো হয়। যার মূল্য ২ লাখ ২০ হাজার ৭১৩ টাকা। এর সঙ্গে ভ্যাট ১১ হাজার ৩৬ টাকা এবং মিটার ভাড়া ১০ টাকাসহ মোট বিল দেখানো হয় ২ লাখ ৩১ হাজার ৭৫৯ টাকা।

বিলের কপি দেখে গ্রামবাসীরাও হতবাক হয়। পরে মিটার রিডারকে অবরুদ্ধ করে রাখেন স্থানীয়রা। বিষয়টি পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে জানানোর পর বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) নতুন করে আরেকটি বিল দেওয়া হয়। এই বিলে ১৫০ ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহার দেখানো হয়। যা মূল্য ৭৩৪ টাকা। এর সঙ্গে ভ্যাট ৩৭ টাকা ও মিটার ভাড়া ১০ টাকা ধরে মোট বিল দেখানো হয় ৭৮১ টাকা।

এ ব্যাপারে নাটোর পল্লী বিদ্যুৎতের জোনাল অফিসের উপ-মহাব্যবস্থাপক রেজাউল করিম বলেন, ‘কম্পিউটার টাইপ করতে ভুল হয়েছিল। পরে ঠিক করে দেওয়া হয়েছে।’

ট্যাগ: bdnewshour24 নাটোর