banglanewspaper

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী জানুয়ারি মাসে। তফসিল ঘোষণা হবে এ মাসের শেষের দিকে। বিকেলে কমিশন সভা শেষে একথা জানান ইসি সচিব মোহাম্মদ আলমগীর।

তিনি জানান, দুই সিটিরই ভোট হবে ইভিএমের মাধ্যমে। এদিকে চট্টগ্রাম সিটির নির্বাচনের বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি বলে জানায় কমিশন।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের বর্তমান জনপ্রতিনিধিদের মেয়াদ শেষ হবে আগামী বছরের ১৩ মে। আর দক্ষিণের শেষ হবে ১৬ মে। আইন অনুযায়ী, মেয়াদ শেষ হওয়ার আগের ১৮০ দিনের মধ্যেই সম্পন্ন করতে হবে নির্বাচন। সেই হিসেবে নির্বাচনের ক্ষণ গণনা শুরু হচ্ছে এ মাসের মাঝামাঝি থেকে।

ঢাকার দুই সিটি এবং চট্টগ্রাম সিটির নির্বাচন নিয়ে রোববার দুপুরে বৈঠকে বসে নির্বাচন কমিশন। প্রায় ৩ ঘণ্টার বৈঠক শেষে কমিশন সচিব জানান, জানুয়ারির শেষ দিকে একইদিনে ভোট হবে ঢাকা উত্তর এবং দক্ষিণ সিটিতে।

আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে আগস্টের মধ্যে চট্টগ্রামের সিটির ভোটগ্রহণের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। তবে চট্টগ্রামের নির্বাচন নিয়ে আপাতত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানান ইসি সচিব।

ইসি সচিব জানান, বিদ্যমান ভোটার তালিকা দিয়ে ভোট হবে ঢাকার দুই সিটিতে। আর চট্টগ্রামে সিটির নির্বাচনে থাকবে হালাগাদ ভোটার তালিকা। এক্ষেত্রে কোনো আইনি জটিলতা নেই বলে জানায় কমিশন।

২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল ঢাকার দুই সিটি এবং চট্টগ্রাম সিটির নির্বাচন একযোগে সম্পন্ন হয়েছিল। সিটি করপোরেশন আইন অনুযায়ী, করপোরেশনের মেয়াদ হচ্ছে প্রথম সভা থেকে পরের পাঁচ বছর।

আর ভোটের আয়োজন করতে হবে মেয়াদপূর্তির আগের ১৮০ দিনের মধ্যে। সে অনুযায়ী ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়াদ শেষ হবে ২০২০ সালের ১৩ মে, ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়াদ শেষ হবে ২০২০ সালের ১৬ মে। আর চট্টগ্রাম সিটির মেয়াদ শেষ হবে ২০২০ সালের ৫ আগস্ট।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের নির্বাচনে জয়ী হয়ে ঢাকা দক্ষিণের মেয়র হন সাঈদ খোকন। আর ঢাকা উত্তরে মেয়র নির্বাচিত হন ব্যবসায়ী নেতা আনিসুল হক।

আনিসুল হকের মৃত্যুর পর ভোটে নির্বাচিত হয়ে ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র হন আরেক ব্যবসায়ী নেতা আতিকুল ইসলাম। আর চট্টগ্রামের মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হয়ে এখনও দায়িত্ব পালন করছেন আ জ ম নাছির উদ্দীন।

ট্যাগ: bdnewshour24 ঢাকা সিটির নির্বাচন