banglanewspaper

মজিবুর রহমান, কেন্দুয়া (নেত্রকোণা) প্রতিনিধি: নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষে জশনে জুলুস (আনন্দ শোভাযাত্রা) অনুষ্ঠিত হয়েছে।

চট্রগ্রাামের বোয়ালখালীর দরবারে গাউছে হাওলা (হযরত শিবলী মঞ্জিল) হাওলাপুরী উদ্যোগে ও মাহফিলে তরিকতে গাউছে হাওলা কেন্দুয়া উপজেলা শাখার ব্যবস্থাপনায় প্রতি বছরের ন্যায় ১০ নভেম্বর রোববার বেলা সাড়ে ১১টা দিকে কেন্দুয়া পৌরশহরের চকপাড়াস্থ খানকা শরীফ থেকে বের করা হয় ঐতিহ্যবাহী জশনে জুলুস।

দরবারের গাউছে হাওলার গদীনশীন পীর আলহাজ্ব হযরত শাহ সুফী মাওলানা সৈয়দ নঈমূল কুদ্দুছ আকবরী (মা.জি.আ.) নেতৃত্বে এই জশনে জুলুসে হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে জুলুস জনসমুদ্রে পরিণত হয়।

ভক্তরা কালেমা খচিত প্ল্যাকার্ড ,জাতীয় পতাকা বহন করে ও সুলালিত কন্ঠে রাসুল (সাঃ) এঁর শানে রচিত নানা কালজয়ী ইসলামী গান-গজল এবং দুরুদ-সালাম পরিবেশনা ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্যদিয়ে বর্ণাঢ্য জুলুসের এই বিশাল বহরটি পৌর শহরের সাউদপাড়া মোড়,বাজার,থানা মোড়,চিরাং মোড়,বাসস্ট্যান্ড প্রদক্ষিণ করে  খানকা শরীফ প্রাঙ্গণে সংক্ষিপ্ত আলোচনা ও বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

গদীনশীন পীর আলহাজ্ব হযরত শাহ সুফী মাওলানা সৈয়দ নঈমূল কুদ্দুছ আকবরী (মা.জি.আ.) বক্তব্যে বলেন. আজ ১২ই রবিউল আওয়াল। এইদিনে আল্লাহর হাবিব পৃথিবীতে এসেছিলেন মানবজাতির কল্যাণের জন্য। এই দিনটি বিশ্ববাসীর জন্য খুবই তাৎপর্যপূর্ণ। তাঁরই শানে রহমত ও বরকত লাভের আশায় দিবসটি উদযাপন।

যারা নবীকে ভালোবাসেন,আল্লাহ তাকে ভালোবাসেন। নবী আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে সুখী সমৃদ্ধ জীবনগঠন,দেশবাসী জন্য,সমস্তু বিশ্বের নিপীড়িত-নির্যাতিত মুসলিম উম্মাহ’র শান্তি, সুন্নীয়ত তরিকা অকুন্ন্য রাখা, দেশের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সুশৃঙ্খল রাখার জন্য সবার ওপর খোদার রহমত বর্ষিত হউক এবং আজকে যে জুলুস করেছি মহান আল্লাহ তায়ালা’র হাবীব নবী করীম (সাঃ) এঁর উছিলায় আমাদের মোনাজাত কবুল করার তওফিক দান করুন।

এসময় তিনি সদ্য প্রয়াত চট্রগ্রামের সাংসদ বীরমুক্তিযোদ্ধা মঈন উদ্দিন খান বাদলের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন। এছাড়া জুলুসে অংশ নেন কেন্দুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নুরুল ইসলাম,সাবেক চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন ভূইয়া দুলাল,এডভোকেট ই¯্রাফিল,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরে আলম মো.জাহাঙ্গীর চৌধুরী,ভাইস চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন ভূইঁয়াসহ কেন্দুয়া ও বিভিন্ন উপজেলার জনপ্রতিনিধি,বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ অগণিত মুরিদান,আশেকান ও ভক্তবৃন্দ অংশ নেয়। জুলুসে অংশ নেওয়ার জন্য সকাল থেকে কেন্দুয়া উপজেলা ছাড়াও আশে-পাশের বিভিন্ন এলাকা হতে হাওলাপুরী দরবার শরীফের মুরিদান আশেকানরা দরবারে শিবলী মঞ্জিল কেন্দুয়া খানকায়ে জমায়েত হন। তিনি জুলুসের নিরাপত্তায় স্থানীয় সাংসদ,জনপ্রনিনিধি, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী,গণমাধ্যমকর্মী ও স্বেচ্ছাসেবকসহ সবার প্রতি কৃজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 কেন্দুয়া