banglanewspaper

২৬ ওভারে ৩ উইকেটে ৬৩ রান। ইন্দোর টেস্টের প্রথম দিনের সকালের সেশন শেষে স্কোরবোর্ডে এই রান দেখে বাংলাদেশের নিশ্চয়ই খুব বেশি সন্তুষ্ট হওয়ার কথা নয়।

টেস্টের প্রথম সেশন শেষে সন্তুষ্টির যা কিছু তার সবটুকুই ভারতের। টসে জিতে বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক ব্যাটিং বেছে নেন। তবে তার শুরুর তিন ব্যাটসম্যান ভারতের পেসার ত্রয়ীকে ঠিকমতো সামাল দিতে ব্যর্থ। দলীয় ১২ রানে ফিরেন দুই ওপেনার। দুজনেই সিঙ্গেল ডিজিটে আউট। মিডলঅর্ডারে মোহাম্মদ মিঠুন উইকেটে টিকে থেকেও আউট হলেন।

উইকেটে সেট হওয়ার জন্য ৩৬ বল খেলা নিশ্চয়ই কম সময় নয়। কিন্তু সেই সময় পার করার পরও নিজের ইনিংস লম্বা করতে ব্যর্থ মিঠুন। ১৩ রানে ফিরলেন মিঠুন ভারতীয় পেসার মোহাম্মদ শামির বলে এলবিডব্লু হয়ে।

৩১ রানে ৩ উইকেট হারানো বাংলাদেশ দলকে লাঞ্চ পর্যন্ত নিরাপদ রাখেন মুমিনুল হক ও মুশফিকুর রহিম। ভারতীয় বোলারদের সবচেয়ে দক্ষ হাতে সামাল দেন মুমিনুল। ৫৬ বলে ২২ রান নিয়ে খেলছেন বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক। বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন ৪টি। মুশফিক এই টেস্টে ভাগ্যকে সঙ্গে নিয়ে নেমেছেন। ৩ রানে সহজ ক্যাচ দিয়েছিলেন মুশফিক। কিন্তু চতুর্থ স্লিপে সেই ক্যাচ হাতে রাখতে পারেননি বিরাট কোহলি। উমেশ যাদবের বলে জীবন পেয়ে মুশফিক লাঞ্চে যান ১৪ রান তুলে।

সকালের প্রথম ঘন্টায় বাউন্সি উইকেটের পুরোদস্তুর সদ্ব্যবহার করেন ভারতের তিন পেসার। ইশান্ত শর্মা, উমেশ যাদব এবং মোহাম্মদ শামি গতি ও সুইংয়ের তোড়ে বাংলাদেশের টপঅর্ডার ব্যাটসম্যানদের বিপদে ফেলেন। জেনুইন পেসারদের বিপক্ষে বাংলাদেশের ব্যাটিং কোনোসময়ই সাচ্ছন্দ্য বোধ করে না। ইন্দোরের প্রথম ঘন্টায় সেই একই দৃশ্য মিলল।

শুরুর দুই ঘন্টায় ভারতের পেসারদের কাছেই প্রথম তিন উইকেট হারালো বাংলাদেশ। তবে সূর্যের তেজ বাড়তে ইন্দোরের উইকেটে সুইং এবং বাউন্স দুটোই কমে আসে। সেই সুবিধা কাজে লাগিয়ে মুমিনুল ও মুশফিক দলের ইনিংসকে সামনে এগিয়ে নিচ্ছেন।

দ্বিতীয় সেশনে এখন এই দুই সিনিয়রের কাছ থেকে একটা লম্বা জুটির অপেক্ষায় বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: (প্রথম দিন লাঞ্চ পর্যন্ত) ৬৩/৩ (২৬ ওভারে, ইমরুল ৬, সাদমান ৬, মিঠুন ১৩, মুমিনুল ২২*, মুশফিক ১৪*, শর্মা ১/১২, যাদব ১/২৭, শামি ১/১২)।

ট্যাগ: bdnewshour24 মুমিনুল মুশফিক