banglanewspaper

পরিবহন খাতে চাঁদার সমস্যা সমাধান করতে পারলে অনেক সমস্যার সমাধান হবে বলে মন্তব্য করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম।বুধবার ঢাকার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘এমনকি এই চাঁদাবাজির সঙ্গে দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরাও জড়িত আছে।’

নাসিম বলেন, ‘পরিবহন খাতের নেতারা সবাই রাজনীতি করেন। এই খাতে চাঁদার ব্যাপারে সবাই একমত। কমিউনিস্ট নেতার সঙ্গে আওয়ামী লীগ নেতার কোনো পার্থক্য নাই। বিএনপি নেতার সঙ্গে জামায়াত নেতার কোনো পার্থক্য নেই।’

নতুন সড়ক পরিবহন আইনের কয়েকটি ধারা সংশোধনের দাবিতে পণ্যবাহী যানের মালিক-শ্রমিকদের কর্মবিরতি পালনের মধ্যে নাসিমের এমন বক্তব্য এল।

ধর্মঘট ডাকার বিষয়ে মালিক-শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘পরিবহন ধর্মঘট ডেকে ঠিক করেননি। আপনারা আলোচনায় বসতে পারতেন। টেবিলে না বসে আগে ধর্মঘট ডেকে দিলেন, মানুষকে কষ্ট দেয়ার জন্য। এটা ঠিক করেননি।’

‘আওয়ামী লীগ জনগণের রাজনীতি করে, শেখ হাসিনা জনগণের রাজনীতি করেন। আপনারা টেবিলে না বসে আগে ধর্মঘট ডেকে দিলেন মানুষকে কষ্ট দেয়ার জন্য।’

জনসাধারণকে দু-একদিন একটু কষ্ট করার আহ্বান জানিয়ে ১৪ দলের সমন্বয়ক নাসিম বলেন, ‘দেখবেন, ওই সমস্ত মাফিয়াচক্র ঠান্ডা হয়ে যাবে। এর সঙ্গে শুধু আওয়ামী লীগ, বিএনপি কিংবা বাম দলগুলোই নয় পরিবহন সেক্টরের চাঁদাবাজির সঙ্গে দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরাও জড়িত।’

জেলহত্যা দিবস ও শেখ রাসেলের জন্মদিনকে ‘শিশু রক্ষা’ দিবস হিসেবে পালনের দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে আলোচনা সভাটির আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এমএ কাদের খান ও বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের কার্যনির্বাহী সভাপতি ফালগুনী হামিদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 পরিবহন