banglanewspaper

ইয়েমেনের উদ্দেশ্যে পাঠানো ইরানি অস্ত্রবাহী একটি জাহাজ আটকের যে দাবি মার্কিন নৌবাহিনী করেছে তাকে ভিত্তিহীন বলে প্রত্যাখ্যান করেছে ইয়েমেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দেশটির একজন কর্মকর্তা আল-মায়াদিন টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে যুক্তরাষ্ট্রের ওই দাবি প্রত্যাখ্যান করেছেন।

অন্যকে দোষারোপ করে যুক্তরাষ্ট্র নিজের ব্যর্থতার ব্যাপারে বিশ্ব জনমতকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে বলে উল্লেখ করেন তিনি। খবর পার্স টুডের।

ইয়েমেনের সেনাবাহিনী গত ১৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের বুকাইক ও খুরাইস তেল শোধনাগারে ড্রোন হামলা চালায়। ওই দুই তেল শোধানাগার অত্যাধুনিক মার্কিন আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা প্যাট্রিয়টের নিরাপত্তা বলয়ে থাকা সত্ত্বেও ইয়েমেনের ড্রোন হামলা থেকে এগুলোকে রক্ষা করা সম্ভব হয়নি। এর ফলে বহুল আলোচিত মার্কিন প্যাট্রিয়ট ব্যবস্থার কার্যকারিতা নিয়ে মারাত্মক প্রশ্ন দেখা দেয়।

মার্কিন নৌবাহিনী সম্প্রতি দাবি করেছে, তারা আরব সাগর থেকে ইয়েমেন অভিমুখী একটি ক্ষেপণাস্ত্রবাহী জাহাজ আটক করেছে।

মার্কির নৌবাহিনীর দাবিকে প্রত্যাখ্যান করে ইয়েমেনের ওই কর্মকর্তা বলেন, সৌদি আরবের দু’টি তেলক্ষেত্রকে ইয়েমেনের ড্রোন হামলা থেকে রক্ষা করতে প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থার ব্যর্থতা ধামাচাপা দিতে এই মিথ্যাচার করা হচ্ছে।

২০১৫ সালের মার্চ মাস থেকে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ আরও কয়েকটি দেশ ইয়েমেনের ওপর ভয়াবহ আগ্রাসন শুরু করে। গত চার বছরেরও বেশি সময় ধরে চালানো এ আগ্রাসনে হাজার হাজার মানুষ নিহত হওয়া ছাড়াও ইয়েমেনের অর্থনীতি ও অবকাঠামোর অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 ইরানি জাহাজ