banglanewspaper

স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পা হত্যাকাণ্ডের দুদিন পেরিয়ে গেলেও রহস্যের কূলিকনারা করতে পারেননি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এদিকে দ্বিতীয় দিনের মতো মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করছে রুম্পার সহপাঠীরা। 

শিক্ষার্থীদের দাবি, ‘দ্রুত এই হত্যার সঙ্গে যারা জড়িত তাদেরকে আইনের আওতায় আনেত হবে। পাশাপাশি এই  হত্যাকাণ্ডের জরিতদের বিচারের দাবিতে  প্রত্যেকটি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আন্দোলনের আহ্বান জানান শিক্ষার্থীরা। একইসাথে শিক্ষার্থী ও নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের ব্যাপারের দাবি তোলেন তারা।

আজ শনিবার (৭ ডিসেম্বর) ধানমন্ডি ও সিদ্ধেশ্বরী ক্যাম্পাসে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচিতে এসব কথা বলেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে রুম্পার সহপাঠীরা বলেন, ‘আর যেন কোনও রুম্পাকে এভাবে প্রাণ দিতে না হয়। সেজন্য  এই হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করে জড়িতদের মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিত করতে হবে। দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হলেই পরবর্তীতে আমি বা আমরা রক্ষা পাবো। নাহলে এরকম নির্মম হত্যা চলতেই থাকবে।’


 

মানববন্ধনে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ছাইফুল ইসলাম মাছুম বলেন, ‘শুরু থেকেই এই হত্যাকাণ্ড অন্য দিকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। অন্য কোনও ইস্যুতে যেন রুম্পা হত্যাকাণ্ড ধামাচাপা না পড়ে সেদিকে আমাদের নজর দিতে হবে।’

মানববন্ধন শেষে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকেরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ধানমন্ডি ১৯ থেকে ১৫ নম্বর রোড প্রদক্ষিণ করেন। মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেন বিশ্ববিদ্যালয়টির সাতটি বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

উল্লেখ্য, গত বুধবার (৪ ডিসেম্বর) রাত পৌনে ১১টার দিকে সিদ্ধেশ্বরীর ৬৪/৪ নম্বর বাসার নিচে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

ট্যাগ: bdnewshour24 স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়